ক্রিকেট মাঠের দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ভারত-পাকিস্তানের দ্বিপাক্ষিক সিরিজ আয়োজন হয়না বেশ কয়েকবছর ধরেই। বাইশ গজ ছাড়িয়ে যে উত্তাপ তৈরি করে অন্য আবহ, সেই লড়াই থেকেই বঞ্চিত হয়ে আছে দুই দেশের সমর্থকেরা। তবে পাকিস্তানের ইচ্ছে থাকলেও নানা বাহানাতে সিরিজ খেলতে অস্বীকৃতি জানিয়ে আসছে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড। তারই দরুন কিছুদিন আগেই ভারতের বিপক্ষে মামলা ঠুকে দিয়েছিল পাকিস্তান। এতকরে পরে উল্টো নিজেদেরই পড়তে হলো বিপাকে।

দুই বোর্ডের মধ্যকার চুক্তি থাকা সত্বেও ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড রাজনৈতিক অস্থিরতার দোহাই দিয়ে বারবার সিরিজগুলো খেলতে অনীহা জানিয়ে আসে। তাইতো এই সুযোগটা নিয়েছিলো পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড। চুক্তি থাকার পরও সিরিজ খেলতে না চাওয়াতেই তারা আইসিসির দরবারে ভারতের নামে মামলা ঠুকে দিয়েছিল ৬ কোটি ৩০ লাখ ডলার ক্ষতিপূরণ চেয়ে।

দুই বোর্ডের মধ্যকার হওয়া সমঝোতা চুক্তিতে ২০১৫-২০২৩ সালের মধ্যে ৬ টি দ্বিপাক্ষিক সিরিজ খেলার কথা ছিলো দুই দেশের, যার চারটি আবার পাকিস্তানের ঘরের মাঠে। অথচ বিভিন্ন ইস্যু দেখিয়ে ২০১৮ সালের শেষভাগ পর্যন্ত এসেও ভারত খেলেনি একটি সিরিজও। দ্বিপাক্ষিক সিরিজ না খেললেও আইসিসি ও এসিসির অধীনে হওয়া টুর্নামেন্টগুলোতে ঠিকই মুখোমুখি হচ্ছে ভারত।

তাইতো বধ্য হয়েই আইনি লড়াইয়ের পথ বেঁছে নেই পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড। কিন্তু পরে এ মামলায় রায় তাদের বিপক্ষে যাওয়ায় এবার উল্টো ২০ লাখ ডলার জরিমানা গুণতে হবে পিসিবিকে।

গত মাসে করা পিসিবির মামলা খতিয়ে দেখে এমন সিদ্ধান্ত জানিয়েছে আইসিসির বিরোধ নিষ্পত্তি কমিটি। পাকিস্তানের করা ক্ষতিপূরণ মামলায় নিজেদের মামলার খরচ স্বরূপ এ অর্থ পাবে ভারতীয় ক্রিকেট বর্ড। তবে বিসিসিআই নিজেদের আইনী খরচস্বরূপ আরও বেশি অর্থ দাবী করেছিল।

আইসিসির বিরোধ নিষ্পত্তি কমিটি এ মামলার রায় ঘোষণার সময়েই জানিয়ে দিয়েছে যেহেতু এ মামলায় পিসিবি এরই মধ্যে ১০ লাখ ডলার খরচ করেছে, তাই তাদের বিসিসিআইর দাবীকৃত অর্থের পুরোটা দিতে হবে না। তাই বিসিসিআই যে অর্থ দাবী করেছে তার ৬০ শতাংশই দেবে পিসিবি।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here