একাদশ জাতীয় নির্বাচনে নারী ও সংখ্যালঘুদের ভোটাধিকার নিশ্চিত করতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন নির্বাচন কমিশনার কবিতা খানম।

তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশের জনসংখ্যার অর্ধেক নারী। জনপ্রতিনিধি নির্বাচনে তাদের ভূমিকা অগ্রগণ্য। তাই একাদশ সংসদ নির্বাচনে তাদের নিরাপদ অংশগ্রহণ নিশ্চিত করতে হবে।’

শুক্রবার (২১ ডিসেম্বর) সকালে খুলনার একটি হোটেলে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপলক্ষে নির্বাচনে নারীর নিরাপদ অংশগ্রহণ ও সুরক্ষা নিশ্চিতের লক্ষে সচেনতাবৃদ্ধিমূলক এক কর্মসূচিতে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন। নির্বাচন কমিশন,ইউএনডিপি এবং ইউএনউইমেন যৌথভাবে এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

কবিতা খানম আরো বলেন, আমরা অনেকেই নারীদের নিরাপত্তা নিয়ে প্রতিনিয়ত সভা সেমিনার করে যাচ্ছি। নারীর সমান অধিকারের কথা বলে বক্তৃতা দিচ্ছি। আবার আমরাই নারীদের ক্ষমতায়ণের পথে বাধা সৃষ্টি করছি। অথচ আমরা যদি নারীদের প্রতিদিনের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে পারতাম তাহলে নির্বাচনের সময় তাদের নিরাপদ অংশগ্রহণ নিয়ে আলাদাভাবে ভাবতে হতো না। নারীরা তাদের যোগ্যতা বলেই এগিয়ে যাচ্ছে বলে জানান তিনি।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন খুলনার বিভাগীয় কমিশনার লোকমান হোসেন মিয়া, খুলনা রেঞ্জ ডিআইজি মোঃ দিদার আহমেদ, পুলিশ কমিশনার (ভারপ্রাপ্ত) সরদার রকিবুল ইসলাম, খুলনা জেলা প্রশাসক ও রিটার্নিং অফিসার মোহাম্মদ হেলাল হোসেন, পুলিশ সুপার এসএম শফিউল্লাহ, ইউএনডিপি’র পরামর্শক এটসুকু হিরাকাওয়া, খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক প্রফেসর হোসনে আরা এবং জেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা নার্গিস ফাতেমা জামিন। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্বে করেন আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা মোঃ মজিবুর রহমান।

এর আগে নির্বাচন কমিশনার বেগম কবিতা খানমের নেতৃত্বে সচেনতাবৃদ্ধিমূলক একটি র‌্যালি নগরীর গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিন করে। র‌্যালিতে বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ অংশগ্রহণ করে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here