ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজের শেষ ম্যাচে ৫০ রানের ব্যবধানে হেরে সিরিজ হাতছাড়া করেছে টাইগাররা। ২ ক্যারবীয় তারকার কাছেই বলতে গেলে শেষ ম্যাচ হেরেছে টাইগাররা। ব্যাট হাতে লিউসের তান্ডবী ৩৬ বলে ৮৯ রানের ইনিংস ও কিমো পলের ৫ উইকেট। এই দুজনই টাইগারদের সিরিজ জয়ের স্বপ্ন কেড়ে নিয়েছে। তবে ম্যাচ হারের জন্য সাকিবের চোখে কারণটা ভিন্ন। তার মতে হঠাৎ করেই ব্যাটিং ধ্বসই বাংলাদেশের ম্যাচ হারের কারণ।

‘যেভাবে বল হাতে আমরা খেলায় ফিরে এসেছিলাম এটা এক কথায় দূর্দান্ত ছিল। আমি মনে করি এটা ১৮০ রানের পিচ ছিল। ব্যাট হাতে আমরা নিশ্চিত ছিলাম না কিভাবে আমাদেরকে লক্ষ্যে পৌঁছাতে হবে। আমাদের শুরুটা ভালো হয়েছিল। একসময় প্রথম ৪ ওভারেই ৬০ রান পার করেছিল ব্যাটসম্যানরা। কিন্তু এরপরই হঠাৎ করে নিয়মিত বিরতিতে উইকেটের পতনে ম্যাচ থেকে আমাদেরকে ছিটকে দিয়েছে।’

ওয়েস্ট ইন্ডিজ অধিনায়ক কার্লোস ব্রাথওয়েট ও বাংলাদেশ কোচ স্টিভ রোডসের মতে, ওয়েস্ট ইন্ডিজের সঙ্গে ৫০ রানের হারটা ঢাকা পড়ে গেছে মাঠের বাইরের বিতর্কিত এক কারণে। ম্যাচ শেষে এ নিয়ে কথা বলেছেন তারা দুজনই । দুজনেই বলেছেন, ওই ঘটনার পর ম্যাচের দিকও অনেকটা বদলে গেছে।

ঘটনার শুরু ওশান টমাসের চতুর্থ ওভারে। চতুর্থ বলটা নো করেছিলেন টমাস, যদিও রিপ্লেতে দেখা গেছে সেটি নো ছিল না। টমাসের পা লাইনের ভেতরেই ছিল। ব্রাথওয়েট তখনই ওই সিদ্ধান্তের প্রতিবাদ জানিয়েছিলেন। এক বল পর আবার নো বলের সংকেত দিলেন আম্পায়ার তানভীর আহমেদ, এবার মারতে গিয়ে ক্যাচ তুলে দিলেন লিটন। রিপ্লেতে দেখা গেল, সেটিও নো ছিল না।

এরপরেই শুরু হলো নাটক। ব্রাথওয়েট দুই আম্পায়ারের কাছে দাবি করলেন রিভিউ নেওয়ার। দুজন জানালেন, নো বলের সিদ্ধান্ত রিভিউ করা যাবে না। ব্রাথওয়েট তখন সতীর্থদের সঙ্গে কথা বললেন। এর মধ্যে সাইডলাইনে চতুর্থ আম্পায়ার ও ম্যাচ রেফারি জেফ ক্রোও চলে এসেছেন। দুজনের সঙ্গে অনেকক্ষণ কথা বললেন ওয়েস্ট ইন্ডিজ অধিনায়ক। এর পর মাঠে ফিরে আবার শুরু করলেন খেলা।

কী অদ্ভুত, এরপরেই যেন পথ হারিয়ে ফেলল বাংলাদেশ। ওই আউটের পরের ওভারেই আউট হয়ে গেলেন সৌম্য ও সাকিব। তাও ফাবিয়ান এলেনের বলে একই রকম শট খেলতে গিয়ে দিয়ে এলেন উইকেট। ম্যাচ শেষে বাংলাদেশ কোচ রোডস এ নিয়ে বলেছেন, ‘আমার মনে হয় ওই ঘটনা ম্যাচের ছন্দ অনেকটাই বদলে দিয়েছে। অনেকটা সময় খেলা বন্ধ ছিল। এরপর যখন আবার খেলা শুরু হয়েছে খেলোয়াড়েরা নিজেদের মনযোগ ধরে রাখতে পারেনি। আমি জানি না, কেন এভাবে ওরা বড় শট খেলতে গেল। কিন্তু আমার মনে হয় এই ম্যাচ থেকে অনেক কিছু শেখার আছে খেলোয়াড়দের। টি-টোয়েন্টিতে এখনও অনেক উন্নতি করার আছে আমাদের।’

ওয়েস্ট ইন্ডিজ অধিনায়ক ব্রাথওয়েটও বললেন, ওই ঘটনার সময় তারা নিজেরা একসঙ্গে কথা বলেছেন, সেটা তাদের সাহায্য করেছে, ‘আমার মনে হয় ফিফটি ফিফটি সিদ্ধান্ত ওদের পক্ষে বেশি যাচ্ছিল। সেজন্য আমি প্রতিবাদ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। তবে এর মধ্যে আমরা নিজেরা কথা বলেছি। একে অন্যকে বলেছি, ওই অবস্থা থেকে ঘুরে দাঁড়ানো সম্ভব।’ শেষ পর্যন্ত সেটাই হয়েছে। ১ উইকেটে ৬৫ রান থেকে ১৪০ রানে অলআউট হয়ে গেছে বাংলাদেশ।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here