সৌদি আরবের স্পষ্টবাদী প্রিন্স তালাল বিন আবদুল আজিজ আমরণ অনশন করতে গিয়ে প্রচণ্ড দুর্বল হয়ে মারা গেছেন। তিনি সৌদি যুবরাজ মুহাম্মাদ বিন সালমানসহ সৌদি রাজপরিবারের সদস্যদের অনেকের বিরুদ্ধেই প্রকাশ্য সমালোচনা করতেন এবং আন্তর্জাতিক অঙ্গনে তিনি স্পষ্টবাদী প্রিন্স হিসেবে খ্যাত ছিলেন।

প্রিন্স তালাল শনিবার মারা যান এবং তার বয়স হয়েছিল ৮৭ বছর। তিনি রিয়াদের একটি হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন তবে কোথায় তিনি মারা গেছেন তা পরিষ্কার নয়। প্রিন্স তালাল বর্তমান রাজা সালমান বিন আবদুল আজিজের সৎ ভাই এবং সৌদি ধনকুবের প্রিন্স আল-ওয়ালিদের বাবা।

গত বছরের নভেম্বর মাসে তার তিন ছেলেকে সৌদি রাজা সালমান আটক করলে তিনি খাওয়া-দাওয়া বন্ধ করে দেন। সে সময় ধনকুবের আল-ওয়ালিদকেও আটক করা হয়। বলা হয়- ৬০০ কোটি ডলার ঘুষ দেয়ার পর গত জানুয়ারিতে তিনি মুক্তি পান। আমরণ অনশন শুরুর আগে তালারবিন আবদুল আজিজ তার বন্ধুদেরকে বলেছিলেন, সভ্যভাবে প্রতিবাদের মাধ্যমে যুবরাজ মুহাম্মাদ বিন সালমানের স্বৈরতন্ত্র প্রতিষ্ঠার বিষয়ে আন্তর্জাতিক সমাজের দৃষ্টি আকর্ষণের প্রয়োজন রয়েছে।

সৌদি আরবে সাংবিধানিক সংস্কারের জন্য তালাল বিন আবদুল আজিজ দীর্ঘদিন ধরে দাবি জানিয়ে আসছিলেন। ১৯৬০ এর দশকে সৌদি সরকার তার পাসপোর্ট কেড়ে নিলে তিনি চার বছর নির্বাসনে ছিলেন। তবে ফয়সাল বিন আবদুল আজিজ আলে সৌদ ক্ষমতায় আসার পর তিনি দেশে ফেরেন।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here