অনেকদিন ধরেই নেইমারকে পেতে জোর চেষ্টায় চালিয়ে যাচ্ছেন রিয়াল মাদ্রিদ সভাপতি ফ্লোরেন্তিনো পেরেজ। কিন্তু তাকে ফাঁকি দিয়ে ব্রাজিলের এ ফরোয়ার্ড গত মৌসুমেই যে পাড়ি দিয়েছেন পিএসজিতে। তারপরও হাল ছাড়েননি পেরেজ। আশায় রয়েছেন নিকট ভবিষ্যতে সাবেক বার্সেলোনা তারকাকে সান্তিয়াগো বার্নাব্যুর ক্লাবে ভেড়াতে পারবেন। তবে লিলের স্পোর্টিং ডিরেক্টর লুইস ক্যাম্পোস বলেছেন, রিয়ালের জন্য নেইমার নয়, এমবাপেকে টানলেই ভালো হবে।

এমবাপের সাবেক ক্লাবের এএস মোনাকোতে টেকনিক্যাল ডিরেক্টর হিসেবে কিছুদিন আগেও কাজ করছিলেন লুইস ক্যাম্পোস। সে সময় ফ্রান্স ফরোয়ার্ডের উথানটা তিনি দেখেছিলেন স্বচক্ষে। এমবাপ্পের প্রতিভা নিয়ে তার মনে কোনো সন্দেহ নেই। আর এ কারণেই তার ধারণা এক দিন না একদিন রিয়াল মাদ্রিদে ঘর বাঁধবেন এমবাপে, ‘কিলিয়ান অসাধারণ মায়াবী ফুটবল খেলে। এটাই আমরা দেখতে চাই। আর এত উচ্চ মানের ফুটবলার হিসেবে ওর গায়ে আমি রিয়াল মাদ্রিদের জার্সি দেখতে পাচ্ছি। কারণ এটাই সে ক্লাব যা তার মানের সঙ্গে যায়, এখানেই সেরা খেলোয়াড়েরা যেতে চায়।’

এমবাপের বয়স যখন ১৪ তখন থেকেই রিয়ালের নজরে পড়েছিলেন তিনি। সে সময় দলটির কোচ জিনেদিন জিদান। তারপরও তাকে উপেক্ষা করে মোনাকোতেই নিজের নাম লেখান ফ্রান্স ফরোয়ার্ড। সে সিদ্ধান্ত যে মোটেও ভুল ছিলো না সেটা গত বছরই প্রমাণ করেছেন তিনি।

গত বছর ১৮০ মিলিয়ন ইউরো খরচ করে এমবাপেকে টানতে চেয়েছিল রিয়াল। কিন্তু এবারও সান্তিয়াগো বার্নাব্যুর ক্লাবটিকে ফাঁকি দিয়ে এমবাপে পাড়ি দিয়েছেন পিএসজিতে। তার কদিন আগেই নেইমারকে কিনেছিল প্যারিসের দলটি। একই দল বদলে রিয়ালের দুই লক্ষ্য এভাবে টেনে এনে চমকই জাগিয়েছিল ফরাসি ক্লাবটি। তবে ক্যাম্পোসের ধারণা নেইমার নয়, এমবাপেই আলোকিত করবেন বার্নাব্যু। এমনকি ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর কীর্তিকেও টপকে যাবেন তিনি, ‘ভবিষ্যতে আমি নিজেকে সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে দেখতে পাচ্ছি। সেখানে এমবাপের জাদু উপভোগ করছি। কারণ এখন নেইমারের চেয়ে এমবাপেই বেশি ম্যাচের ভাগ্য গড়ে দিচ্ছে। সে রোনালদোর চেয়েও ভালো হবে। আমার চোখে এমবাপ্পে রোনালদোর চেয়ে বেশি ব্যালন ডি’অর জিতবে।’

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here