কৈশোর পেরোনোর আগেই রিয়াল মাদ্রিদে নাম লিখিয়েছেন রদ্রিগো আন্তোনিও রদ্রিগেজ। কিন্তু নেইমারের সঙ্গে তার তুলনা বাড়াবাড়ি মনে হচ্ছে এ ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ডের কাছে। ৪০ মিলিয়ন পাউন্ড খরচ করে ১৭ বছর বয়সী ব্রাজিলিয়ান ফুটবলার রদ্রিগো রদ্রিগেজকে ব্রাজিলের গ্রেমিও ক্লাব থেকে দলে টেনেছে স্প্যানিশ জায়ান্ট রিয়াল মাদ্রিদ।

এর আগে মাদ্রিদিস্তারা ৪৫ মিলিয়ন পাউন্ড ব্যয়ে দলে ভেড়ায় ১৬ বছর বয়সী ব্রাজিলিয়ান বিস্ময় ভিনিসিয়ুসকে। ব্রাজিলিয়ান সুপারস্টার নেইমারের মতো দু’জনেরই মাঠের বাঁ-প্রান্তে খেলাটা পছন্দ।  উভয়ের পায়েই রয়েছে নেইমারের মতো কারুকাজ।

এরই মধ্যে রিয়ালের জার্সি গায়ে খেলার অভিজ্ঞতা হয়েছে ভিনিসিয়ুসের। কিন্তু বয়স এখনো ১৮ পূর্ণ না হওয়ায় ব্রাজিলেই আছেন রদ্রিগো রদ্রিগেজ। এ তরুণ ফরোয়ার্ডের দিকে নজর পড়েছে ব্রাজিল জাতীয় দলের কোচ লিওনার্দো বাচ্চি তিতেরও।

রদ্রিগোর মধ্যে নেইমারের ছবি দেখছেন ফুটবল বোদ্ধারা। তবে নেইমারের সঙ্গে এমন তুলনা পছন্দ হচ্ছে না খোদ রদ্রিগোর। রদ্রিগো রদ্রিগেজ বলেন ‘নেইমার হলো নেইমার আর রদ্রিগো হচ্ছে রদ্রিগো। সে যা করে, অন্য কেউ সেটা সেভাবে করতে পারে না। মানুষ আমাদের মাঝে তুলনা করতে চায় কিন্তু এখানে তুলনা সম্ভব নয়।

নেইমারের বয়স ২৬ এবং সে সবকিছু জিতেছে। সে কোপা লিবার্তোদোরেস জিতেছে, জিতেছে অলিম্পিক, চ্যাম্পিয়ন্স লীগ। আর আমি পেশাদার ক্যারিয়ারের প্রথম বছর কাটাচ্ছি। এটা গাধামি (তুলনা)। সে আমার আদর্শদের একজন কিন্তু আমাদের মধ্যে তুলনা চলে না।’

ব্রাজিলিয়ান ক্লাব সান্তোসের হয়ে ২০১১ সালে দক্ষিণ আমেরিকার ক্লাব ফুটবলের শীর্ষ আসর কোপা লিবার্তোদোরেস শিরোপা জেতেন নেইমার। সে সুবাদেই বার্সেলোনার সঙ্গে ক্লাব বিশ্বকাপ খেলেছেন। আর ২০১৩ সালে বার্সেলোনাতে যাওয়ার পর জিতেছেন স্প্যানিশ লা লিগা, কোপা দেল রে, ইউয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লীগ ও ক্লাব বিশ্বকাপ শিরোপা। আগামী জুনে মাদ্রিদের সান্টিয়াগো বার্নাব্যুতে পা রাখবেন রদ্রিগো।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here