আমেরিকা প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প এবং ফার্স্ট লেডি মেলানিয়া ট্রাম্প হঠাৎ করেই ইরাকে অবস্থিত মার্কিন সেনাদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন। বড়দিনের বিশেষ সফরে তারা সেখানে যান।

বিবিসি জানিয়েছে, তারা বড়দিনের রাতের পর ইরাকে যান। সেখানে মূলত মার্কিন সেনাদের ধন্যবাদ জানান তারা। হোয়াইট হাউজ জানিয়েছে, মার্কিন সেনাদের সেবা, সাফল্য এবং ত্যাগের জন্য তাদের ধন্যবাদ জানিয়েছেন ট্রাম্প ও মেলানিয়া।

এসময় ট্রাম্প জানান, ইরাক থেকে সৈন্য প্রত্যাহারের কোনও পরিকল্পনা তাদের নেই।

কয়েকদিন আগেই সিরিয়া ও আফগানিস্তান থেকে সৈন্য প্রত্যাহারের ঘোষণা দিয়েছেন ট্রাম্প। তার এই ঘোষণার সঙ্গে একমত হতে পারেননি দেশটির প্রতিরক্ষামন্ত্রী জিম ম্যাটিস। ফলে তিনি পদত্যাগেরও ঘোষণা দেন। ওই ঘোষণা দেয়ার কয়েকদিনের মধ্যেই ইরাক সফরে গেলেন ট্রাম্প।

ইরাকে বর্তমানে ৫ হাজারের মতো মার্কিন সেনা আছে। দেশটিতে ইসলামিক স্টেটের (আইএস) বিরুদ্ধে সরকারকে আরও শক্তিশালী করার জন্য কাজ করে যাচ্ছে তারা।

ট্রাম্প ইরাকে গেলেও ইরাকের প্রধানমন্ত্রী আদেন আবদুল মাহাদির সঙ্গে নির্ধারিত মিটিং বাতিল হয়েছে। কীভাবে মিটিং হবে সে সম্পর্কিত বিষয়ে ঐকমত্যে পৌঁছাতে না পারায় শেষ পর্যন্ত এটি বাতিল করা হয়। তবে দু’জনের মধ্যে ফোনে কথা হয়েছে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা।

ট্রাম্পের এই সফর তিন ঘণ্টা স্থায়ী ছিল। সেখান থেকে ফেরার সময় তিনি জার্মানিতে অবস্থিত মার্কিন সেনাদের সঙ্গেও সাক্ষাৎ করেছেন।

 

 

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here