আজ ৫৩ বছরে পা দিলেন বলিউড ‘ভাইজান’ সালমান খান। স্টারডমের বাইরেও তাঁর জীবনের আরও কিছু দিক রয়েছে, যেগুলো নিয়ে সেভাবে আলোচনা হয় না। আজ তাঁর জন্মদিনে জেনে নেওয়া যাক সেই সব অপ্রচলিত তথ্য।

প্রায় সবাই এটাই জানেন যে, সলমান ১৯৮৯ সালে ‘ম্যায়নে পেয়ার কিয়া’ ছবি দিয়ে বলিউডে ডেবিউ করেন। কিন্তু, ১৯৮৮ সালেই ‘বিবি হো তো অ্যায়েসি’ ছবিতে এক সাপোর্টিং চরিত্রে অভিনয় করেন সালমান। সেই ছবিতে রেখা ছিলেন মুখ্য চরিত্রে।

সালমান সেইভাবে স্বচ্ছন্দ নন সোশাল মিডিয়াতে। তাঁর কোনও ইমেল আইডি নেই বলেই শোনা যায়। তিনি ফোনের মাধ্যমে বা সামনা সামনি কথা বলতেই পছন্দ করেন।

অনেকেই জানেন যে, সলমান একজন পেন্টার। তবে এটা অনেকেই জানেন না যে, ‘জয় হো’-র পোস্টারগুলো তাঁরই আঁকা। এমনও শোনা যায় যে, আমির খানের বাড়িতে একাধিক পেন্টিং রয়েছে সলমানের।

কোনওদিন কোনও সিনেমার রিভিউ পড়েন না সলমান। এটাও একটা ব্যতিক্রমী বিষয় তাঁর মতো স্টারের পক্ষে। কে তাঁর ছবি নিয়ে কী বলল, জানতেই চান না তিনি।

এটা সবারই জানা যে, সলমানের একটা বড় ফ্যান বেস আছে। তবে এটা বোধহয় কেউ জানেন না যে, তাঁর ফ্যানেরা একটা রেস্তোরা বানিয়েছেন সলমানকে উদ্দেশ্য করে। সেই রোস্তোরার নাম ‘ভাইজান’স’।

শাহরুখ নয়, বাজ়িগর ছবিটি অফার করা হয়েছিল সলমানকে। কিন্তু, ক্যারিয়ারের শুরুতে এক ভিলেনের চরিত্রে অভিনয় করতে চাননি তিনি। তাই প্রত্যাখ্যান করেছিলেন সেই অফার। এরপর শাহরুখ করেন সেই চরিত্র। তারপর ইতিহাস।

‘বীর’ বা ‘চন্দ্রমুখী’-র মতো একাধিক ছবির গল্প সলমানের লেখা। এই তথ্যটাই সেভাবে প্রচলিত ছিল না এতদিন।

 

সামনে রিলিজ় হতে চলেছে সলমানের ‘ভারত’। তাঁর কাজ আর জীবন নিয়ে রইল অনেক শুভেচ্ছা।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here