রেকর্ড চতুর্থবারের মতো বাংলাদেশর প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হতে যাচ্ছেন আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা। গত দুই মেয়াদে তার সরকারের ব্যাপক উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ডের ফলে এবারও জনগণ আওয়ামী লীগকেই বেছে নিবে।

যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক সংবাদ সংস্থা অ্যাসোসিয়েটেড প্রেসের (এপি) এক বিশ্লেষণে এমনই আভাস দেয়া হয়েছে।

এপির প্রতিবেদনটি মার্কিন প্রভাবশালী ম্যাগাজিন ‘টাইম’, যুক্তরাজ্যের গার্ডিয়ানসহ বেশ কয়েকটি আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমে প্রকাশ করা হয়েছে।

যদিও বাংলাদেশের ‘অসাধারণ অর্থনৈতিক সাফল্যের’ পাশাপাশি দেশের ‘দুর্বল গণতন্ত্র’ নিয়ে বিরোধীদের মধ্যে প্রশ্ন আছে বলেও ওই প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আগামী রোববারের নির্বাচন, ১৯৭১ সালে পাকিস্তানের কাছ থেকে স্বাধীনতা লাভের পর বাংলাদেশের ১১তম সাধারণ নির্বাচন। এতে অক্সফোর্ড পড়ুয়া ও সাবেক পররাষ্ট্র মন্ত্রী ৮২ বছর বয়সী কামাল হোসেনের নেতৃত্বাধীন ঐক্যবদ্ধ বিরোধী শিবিরের মুখোমুখি হচ্ছেন ৭১ বছর বয়সী শেখ হাসিনা। তবে এবারের নির্বাচনে অংশ নিতে পারছেন না শেখ হাসিনার বড় প্রতিদ্বন্দ্বী ৭৪ বছর বয়সী সাবেক প্রধানমন্ত্রী এবং বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের (বিএনপি) প্রধান খালেদা জিয়া। দুর্নীতির দায়ে ১৭ বছরের কারাদণ্ডের সাজা ভোগ করছেন তিনি। ঢাকার আদালত তাকে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বী হওয়ায় অযোগ্য ঘোষণা করেছেন।

ওই প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, এবারের নির্বাচনে মোট ভোটারের সংখ্যা ১০ কোটিরও বেশি। প্রতি ১০ জন ভোটারের মধ্যে একজন তরুণ, যাদের মধ্যে অনেকে এবারই প্রথম ভোট দেবেন।

এছাড়া বাংলাদেশি নির্বাচনী ব্যবস্থাকে বিশ্বের বড় গণতান্ত্রিক চর্চাগুলোর মধ্যে অন্যতম বলে উল্লেখ করা হয় ওই প্রতিবেদনে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here