তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়্যেব এরদোগান বলেছেন, কুর্দি জঙ্গি গোষ্ঠীগুলো যদি সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলীয় মানবিজ শহর ও ফোরাত নদীর পূর্ব উপকূল থেকে সরে যায় তাহলে সিরিয়ায় তার দেশ কোনো অভিযান পরিচালনা করবে না।

তিনি শুক্রবার আঙ্কারায় এক বক্তব্যে আরো বলেছেন, সিরিয়ার সার্বভৌমত্বের প্রতি তুরস্কের পূর্ণ সম্মান রয়েছে এবং মানবিজ শহর সিরিয়ার অবিচ্ছেদ্য অংশ।

সিরিয়ার সেনাবাহিনী সেদেশের উত্তরাঞ্চলীয় আলেপ্পো প্রদেশের মানবিজ শহর পুনরুদ্ধার করার পর তুর্কি প্রেসিডেন্ট এরদোগান এ বক্তব্য দিলেন। শুক্রবারই সিরিয়ার সেনাবাহিনী মানবিজ শহরে সিরিয়ার জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেছে।

তবে কয়েকদিন আগে তুর্কি প্রেসিডেন্ট সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলে সামরিক অভিযানের হুমকি দিয়েছিলেন। তিনি বলেছিলেন, কুর্দি বিচ্ছিন্নতাবাদী গোষ্ঠী পিকেকে’র সঙ্গে সংশ্লিষ্ট ওয়াইপিজি জঙ্গি গোষ্ঠীর বিরুদ্ধে অভিযান চালাতে শিগগিরই সিরিয়ায় প্রবেশ করবে তুরস্কের সেনাবাহিনী। তিনি মানবিজ শহর ও ফোরাত নদীর পূর্ব উপকুলে ওই অভিযান চালানোর আভাস দিয়েছিলেন।

সিরিয়ার সেনাপ্রধানের দপ্তর বলেছে, দেশের প্রতি ইঞ্চি ভূমির ওপর প্রেসিডেন্ট বাশার আল-আসাদ সরকারের নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠা করা হবে। ওই দপ্তর আরো বলেছে, মানবিজ শহরের অধিবাসীদের আহ্বানে সাড়া দিয়ে সেখানে প্রবেশ করেছে সিরিয়ার সেনাবাহিনী।

দুই সপ্তাহ আগে তুরস্ক সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলে কুর্দি ওয়াইপিজি গোষ্ঠীর বিরুদ্ধে অভিযান চালানোর হুমকি দেয়ার পর ওই গোষ্ঠী এক বিবৃতিতে সিরিয়ার কুর্দি জনগোষ্ঠীকে দামেস্ক সরকারের অনুগত বলে দাবি করে। বিবৃতিতে কুর্দি অধ্যুষিত মানবিজ শহরের নিয়ন্ত্রণ গ্রহণ করে তুর্কি বাহিনীর আগ্রাসন থেকে শহরটিকে রক্ষা করার জন্য সিরিয়ার সেনাবাহিনীর প্রতি আহ্বান জানানো হয়।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here