কিছুদিন আগে রবির একটি বিজ্ঞাপনে মডেল হিসেবে কাজ করেছিলেন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত দুই অভিনয়শিল্পী চঞ্চল চৌধুরী ও নূসরাত ইমরোজ তিশা। এবার তারা দু’জন প্রথমবারের মতো একটি জনসচেতনতামূলক বিজ্ঞাপনে কাজ করেছেন।

চঞ্চল চৌধুরী বলেন,‘ এরইমধ্যে আমি আর তিশা বিজ্ঞাপনটির শুটিং-এ অংশ নিয়েছি। শিগগিরই বিজ্ঞাপনটি প্রচারে আসবে।’ মানিকগঞ্জে অরুণ চৌধুরীর নির্দেশনায় একটি সিনেমার শূটিং-এ আছেন তিশা।

তিশা বলেন,‘ চঞ্চল ভাইয়ের সঙ্গে প্রত্যেকটি কাজের জন্যই আমি বেশ সাড়া পাই। আশা করছি নতুন কাজটিরও জন্যও সাড়া পাবো।’ মেয়েদের প্রাকৃতিক ও স্বাভাবিক বিষয় পিরিয়ড নিয়ে জনসচেতনতায় কাজ করা ‘ঋতু’ প্রকল্পের ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর হয়েছেন চঞ্চল ও তিশা। ‘ঋতু’র বিভিন্ন জনসচেতনতামূলক প্রচারণায় দেখা যাবে তাদের।

বিজ্ঞাপনগুলো প্রচারের মূল উদ্দেশ্য হলো, মাসিক একটি স্বাভাবিক ও প্রাকৃতিক প্রক্রিয়া এবং এ বিষয়ে অযথা সংকোচ বা কোনরকম কুংস্কারের বিপরীতে যথাযথ সচেতনতা ও সঠিক স্বাস্থ্য ব্যবস্থাপনা খুব জরুরি এই বিষয়টি সবার কাছে তুলে ধরা। ২০১৬ সাল থেকে বাংলাদেশে নেদারল্যান্ডস দূতাবাসের অর্থায়নে ‘ঋতু’ প্রকল্প মেয়েদের মাসিক স্বাস্থ্য ব্যবস্থাপনা পরিস্থিতি উন্নয়নের জন্য কাজ করছে। ‘ঋতু’ প্রকল্পে নেদারল্যান্ডস ভিত্তিক আন্তর্জাতিক উন্নয়ন সংস্থা সিমাভি লিড, রেডঅরেঞ্জ মিডিয়া অ্যান্ড কমিউনিকেশনস স্ট্র্যাটেজিক অ্যান্ড কমিউনিকেশন পার্টনার এবং নেদারল্যান্ডস ভিত্তিক গবেষণা সংস্থা টিএনও পার্টনার হিসেবে আছে। গেলো রোজার ঈদে মোস্তফা

সরয়ার ফারুকীর নির্দেশনায় চঞ্চল ও তিশা একটি টেলিফিল্মে অভিনয় করেছিলেন। চঞ্চল অভিনীত সর্বশেষ মুক্তিপ্রাপ্ত সিনেমা অনম বিশ্বাস পরিচালিত ‘দেবী’। চলতি বছর ‘আয়নাবাজি’ সিনেমায় অভিনয়ের জন্য চঞ্চল এবং ‘অস্তিত্ব’ সিনেমায় অভিনয়ের জন্য তিশা জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারে ভূষিত হন।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here