ঐতিহাসিক মুহূর্তের সাক্ষী হতে যাচ্ছে টেনিস বিশ্ব। দীর্ঘ ক্যারিয়ারে প্রথমবার মুখোমুখি হচ্ছেন টেনিসের দুই জীবন্ত কিংবদন্তি রজার ফেদেরার ও সেরেনা উইলিয়ামস। পার্থে আজ হপম্যান কাপ আসরের মিশ্র দ্বৈত ম্যাচে এই দ্বৈরথ দেখা যাবে। মিক্সড ডাবলসে দু’জনের সঙ্গী বেলিন্ডা বেনচিচ ও ফ্রান্সেস টাইফো। ফেদেরার ও সেরেনার দু’জনের বয়সই ৩৭। দু’জনের গ্র্যান্ডস্লাম শিরোপা সংখ্যা একত্রে ৪৩ (২০ ও ২৩)।

পুরুষ টেনিসের রাজা সুইস কিংবদন্তি ফেদেরার বলেন, ‘এটা আমাদের দু’জনের জন্যই খুবই রোমাঞ্চকর ব্যাপার। আশা করছি, অনেক টেনিস ভক্ত টিভিপর্দায় এই ম্যাচ উপভোগ করবেন।’ নারী টেনিসের সাবেক বিশ্বসেরা মার্কিন তারকা সেরেনা বলেন, ‘যেন স্বপ্ন সত্যি হলো।

আমি এই ম্যাচের জন্য মুখিয়ে আছি। এটা দারুণ ব্যাপার।’ এই ম্যাচকে ১৯৭৩ সালের ‘ব্যাটেল অব সেক্সেস’র পর পুরুষ ও নারী টেনিস খেলোয়াড়ের মধ্যকার সবচেয়ে প্রত্যাশিত লড়াই হিসেবে দেখা হচ্ছে। সেবার পুরুষ টেনিসের সাবেক বিশ্বসেরা ববি রিগসকে সরাসরি সেটে হারিয়ে দিয়েছিলেন ৩৯ বারের গ্র্যান্ড স্লাম জয়ী আমেরিকান নারী টেনিস কিংবদন্তি বিলি জিন কিং। সেরেনাকে ভালোভাবে চেনেন এই কথা বলা অতিরঞ্জিত হবে বলে মনে করেন ফেদেরার।

তিনি বলেন, ‘কোর্ট ও কোর্টের বাইরে সেরেনার যে অর্জন আমি তার প্রশংসা করি। আমরা দু’জনই কঠিন প্রতিযোগী এবং সবসময় জিততে চাই। এ রকম ম্যাচ হয়তো আর হবে না। পুরুষ ও নারী টেনিস মিলিয়ে ইতিহাসের অন্যতম সেরা চ্যাম্পিয়ন সেরেনা। তার বিপক্ষে খেলতে পারা অসাধারণ ব্যাপার।’ আন্তর্জাতিক টেনিস টুর্নামেন্ট হপম্যান কাপে রাউন্ড রবিন পদ্ধতিতে দুইটি সিঙ্গেল ও একটি মিক্সড ডাবলস ম্যাচ রয়েছে। দুই গ্রুপে চারটি করে দল।

গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন দল শনিবারের ফাইনালে মুখোমুখি হবে। ফেদেরার ও বেনচিচ দু’জনই নিজেদের প্রথম ম্যাচে ব্রিটেনের ক্যামেরন নরি ও ক্যাটি বোল্টারের বিপক্ষে জয় কুড়ায়। তবে, সিঙ্গেল ম্যাচে সেরেনা জয় পেলেও গ্রিসের কাছে হার দেখে যুক্তরাষ্ট্র। প্রতিযোগিতার বর্তমান চ্যাম্পিয়ন সুইজারল্যান্ড। ২০১৮ সালের জানুয়ারিতে শিরোপা জেতেন ফেদেরার ও বেনচিচ।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here