বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক, বর্তমান প্রেসিডিয়াম সদস্য ও জনপ্রশাসনমন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম মারা গেছেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাহি রাজিউন)।

ফুসফুস ক্যানসারে আক্রান্ত হয়ে সৈয়দ আশরাফ থাইল্যান্ডের বামরুনগ্রাদ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। বাংলাদেশ সময় বৃহস্পতিবার সাড়ে ৯টায় সৈয়দ আশরাফ মারা যান বলে নিশ্চিত করেছেন আওয়ামী লীগের উপ-দপ্তর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া।

তার মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে কিশোরগঞ্জ সদর ও হোসেনপুর উপজেলা নিয়ে গঠিত কিশোরগঞ্জ-১ আসনে নৌকা প্রতীকে জয়ী হয়েছেন সৈয়দ আশরাফ।

বৃহস্পতিবার সংসদ সদস্যদের শপথ গ্রহণের দিন থাকলেও বিদেশে চিকিৎসাধীন থাকায় সৈয়দ আশরাফ শপথ নিতে পারেননি। শপথ গ্রহণের সময় চেয়ে সৈয়দ আশরাফের পক্ষে স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরীর কাছে চিঠিও পাঠানো হয়।

বঙ্গবন্ধুর ঘনিষ্ঠ সহচর সৈয়দ নজরুল ইসলামের ছেলে আশরাফ আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক। দুই মেয়াদে ওই দায়িত্ব পালনের পর সৈয়দ আশরাফ সভাপতিমণ্ডলির সদস্য হন।

জাতীয় চার নেতা ১৯৭৫ সালে কারাগারে নিহত হওয়ার পর যুক্তরাজ্যে চলে যান আশরাফ। দীর্ঘদিন পর দেশে ফিরে ১৯৯৬ সালে আওয়ামী লীগের মনোনয়নে কিশোরগঞ্জের এই আসন থেকে নির্বাচন করে তিনি সংসদ সদস্য হন। এরপর ২০০১, ২০০৮ ও ২০১৪ সালে নির্বাচিত হন তিনি।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here