আগামী ৩০ মে ইংল্যান্ড এন্ড ওয়েলসে শুরু হচ্ছে ওয়ানডে বিশ্বকাপের ১২তম আসর। বিশ্বকাপকে প্রস্তুতি হিসেবে দেখা হচ্ছে আসন্ন বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল) টি-২০ ক্রিকেট টুর্নামেন্টকে। সেই লক্ষ্য নিয়ে আগামীকাল থেকে শুরু হচ্ছে বিপিএলের ষষ্ঠ আসর। প্রথম দিনই মাঠে নামছে চারটি দল। রয়েছে দু’টি খেলা।

মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে বেলা সাড়ে ১২টায় দিনের প্রথম খেলায় বর্তমান চ্যাম্পিয়ন রংপুর রাইডার্সের প্রতিপক্ষ চিটাগং ভাইকিংস। দিনের দ্বিতীয় খেলায় বিকেল পাঁচটা ২০ মিনিটে লড়বে ঢাকা ডায়নামাইটস ও রাজশাহী কিংস। প্রথমবাররে মতো বিপিএল ম্যাচ পরিচালনার দায়িত্বে থাকছেন ব্রিটিশ আম্পায়ার।

বিপিএল খেলতে এবারই প্রথমবারের মতো এসেছেন অস্ট্রেলিয়ান মহাতারকা ডেভিড ওয়ার্নার, যাত্রাপথে রয়েছেন আরেক তারকা স্টিভেন স্মিথ। টুর্নামেন্ট শুরুর কয়েক ম্যাচ পরেই রাজধানী ঢাকায় পা রাখবেন প্রোটিয়া যোদ্ধা এবি ডি ভিলিয়ার্স।

এর সাথে ক্যারিবীয়ান তারকা ক্রিস গেইল, সুনিল নারিন, আন্দ্রে রাসেল, এভিন লুইস কিংবা ইংলিশ তারকা অ্যালেক্স হেলস, রবি বোপারা ও ইয়ান বেলদের উপস্থিতি আকর্ষণ বাড়াচ্ছে আরও বিপিএলের।

এত সব তারকা ক্রিকেটারদের নিয়ে শনিবার পর্দা উঠবে বিপিএলের এ আসরের। যেখানে সাতটি ভিন্ন ফ্র্যাঞ্চাইজি মাঠের লড়াইয়ে মুখোমুখি হবে অভিন্ন লক্ষ্য, শিরোপা জয়ের জন্য।

এদিকে সদ্য জাতীয় নির্বাচনে আওয়ামী লীগের হয়ে বিপুল ভোটে জয়ী হন বাংলাদেশের ওয়ানডে অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা। বড় বিজয় নিয়ে এবার ক্রিকেট মাঠে নামতে যাচ্ছেন ম্যাশ। তার নেতৃত্বেই গেলবার বিপিএলের শিরোপা জয় করে রংপুর।

ষষ্ঠ আসরের জন্য আরও শক্তিশালী দল গড়েছে রংপুর। দক্ষিণ আফ্রিকার সাবেক অধিনায়ক ও খেলোয়াড়কে এবি ডি ভিলিয়ার্স, ইংল্যান্ডের অ্যালেক্স হেলসকে দলে ভেড়ায় তারা। এছাড়া স্থানীয়দের মধ্যে ব্যাটিং বিভাগে রয়েছেন, মোহাম্মদ মিথুন- নাদিফ চৌধুরি।

বোলিং ডির্পাটমেন্টে আছেন, মাশরাফি-ওয়েস্ট ইন্ডিজের শেলডন কটরেল, আবুল হাসান ও শফিউল ইসলাম। স্পিনার হিসেবে নাজমুল ইসলাম-সোহাগ গাজী আছেন দলে। গেলবছর রংপুরের শিরোপা জয়ে এই দুই স্পিনারের অবদান ছিলো চোখে পড়ার মত।

প্রথম ম্যাচের আগে মাশরাফি বলেন, সংসদ সদস্য হিসেবে নয়, আমি মাঠের মানুষ, একজন ক্রিকেটার। নিজেকে ক্রিকেটার হিসেবেই ভাবতে চাই। ক্রিকেট খেলেই আমি এতদূর এসেছি। তাই ক্রিকেট মাঠে নিজেকে ক্রিকেটার ব্যতীত অন্য কিছু ভাবতে চাই না। আমি যে সংসদ সদস্য হয়েছি, নির্বাচন জিতেছি এর সাথে তো ক্রিকেট মাঠের কোনো সম্পর্ক নেই। এখানে আমি ক্রিকেটার, আপনারাও সেভাবেই দেখবেন আশা করি।

শিরোপা ধরে রাখার ব্যাপারে মাশরাফি বলেন, এমন না যে, চ্যাম্পিয়ন হতেই হবে। তবে মনের মধ্যে সবসময় এটা কাজ করেই, যে আমরা ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন। এবারও তা আছে। তবে এবারের লক্ষ্য থাকবে শুরু থেকেই ভালো করার। গতবার আমাদের শুরুটা ভালো হয়নি। তাই এবার চাই শুরু থেকেই যেন জয়ের পথে থাকতে পারি।

রংপুরের প্রতিপক্ষ চিটাগাং ভাইকিংস। এবার দলের নেতৃত্ব দিবেন মুশফিকুর রহিম। তার নেতৃত্বে এবার ভালো করার ব্যাপারে আশাবাদি মুশফিক। মুশফিক বলেন, আমি যতবারই বিপিএল খেলেছি, চেষ্টা করেছি নিজের সর্বোচ্চটা দেয়ার। অনেক সময় হয়, অনেক সময় হয় না। সত্য কথা হলো, অধিনায়ক সামনে থেকে নেতৃত্ব দিলে দলের জন্য কাজ সহজ হয়ে যায়। এবারও তাই চেষ্টা থাকবে।

দিনের আরেক ম্যাচে লড়বে ঢাকা ডায়নামাইটস ও রাজশাহী কিংস। প্রতিবারই শক্তিশালী দল গঠন করে ঢাকা। টি-২০ ক্রিকেটের সেরা চার অলরাউন্ডার এবার তাদের দলে আছে। এরা হলেন- সাকিব আল হাসান, আন্দ্রে রাসেল, কাইরন পোলার্ড ও সুনীল নারাইন। এছাড়া দেশীদের মধ্যে আছেন- রনি তালুকদার, নুরুল হাসান, রুবেল হোসেনের মত তারকারা। গেল বছর দাপটের সাথে ফাইনালে উঠে ঢাকা। কিন্তু রংপুরের কাছে হার মানতে হয় তাদের। এবার শিরোপা বন্ধ্যাত্ব ঘোচানোই প্রধান লক্ষ্য ঢাকার।

চতুর্থ মৌসুমে ফাইনালে উঠেও শিরোপা হাতছাড়া হয় রাজশাহীর। এবার রাজশাহী পাচ্ছে নতুন অধিনায়ক। অফ-স্পিনার মেহেদি হাসান মিরাজ দলকে নেতৃত্ব দিবেন। সহ-অধিনায়কের দায়িত্ব পান সৌম্য সরকার। বিদেশীদের মধ্যে দলে আছেন, পাকিস্তনের মোহাম্মদ হাফিজ-নেদারল্যান্ডসের রায়ান টেন ডসেট-সেক্কুজে প্রসন্নের মত খেলোয়াড় আছেন দলে। রাজশাহীর দলের আছেন গেল বছর ওয়ানডে ও টি-২০তে সর্বোচ্চ উইকেট শিকারী কাটার মাস্টার মুস্তাফিজুর রহমান। তার সাথে বোলিং-এ থাকছেন আরাফাত সানি, শ্রীলংকার ইসুরু উদানা।

 

এক নজরে বিপিএল:

ব্রিটিশ আম্পায়ার: প্রথমবাররে মতো বিপিএলে ম্যাচ পরিচালনার দায়িত্বে থাকছেন ব্রিটিশ আম্পায়ার। অ্যালেক্স ওয়ার্ফসহ তিন জন বিদেশি এবার যুক্ত হয়েছেন প্যানেলে। উইন্ডিজের বিপক্ষে ভুল সিদ্ধান্তের কারণে বিতর্কিত তানভীর আহমেদকেও রাখা হয়েছে বিপিএল আম্পায়ার প্যানেলে। এছাড়া আম্পায়ার প্যানেলে থাকছেন পাকিস্তানের শোজাব রাজা, শ্রীলঙ্কার র‍্যানমোর মার্টিনেজ। প্রথমবারের মতো থাকছেন ইংলিশ প্রতিনিধি, অ্যালেক্স ওয়ার্ফ।

ফিক্সিং ঠেকাতে প্রস্তুতি: ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেটে ফিক্সিং হরহামেশা হয়ে থাকে। বিপিএলও এ থেকে মুক্ত নয়। এবার ম্যাচ ফিক্সিং আর শৃঙ্খলার বিষয়ে সব ধরণের প্রস্তুতি নিয়ে রেখেছে গভর্নিং কাউন্সিল। শুধু ক্রিকেটার নয়, মাঠে খেলা দেখতে আসা দর্শকদের দিকেও থাকবে নজরদারি। বাজিকরদের তৎপরতা ঠেকাতে বিসিবির সঙ্গে এই বিষয়ে কাজ করবে বিসিবির অ্যান্টি করাপশন ইউনিট।

অংশগ্রহণকারী ৭টি দলের চূড়ান্ত স্কোয়াড:

রংপুর রাইডার্স, দেশি ক্রিকেটার: মাশরাফি বিন মর্তুজা (অধিনায়ক), নাজমুল ইসলাম অপু, মোহাম্মদ মিঠুন, শফিউল ইসলাম,সোহাগ গাজী, ফরহাদ রেজা, মেহেদি মারুফ, নাহিদুল ইসলাম, নাদিফ চৌধুরী, আবুল হোসেন রাজু, এবং ফারদিন হোসেন অনি।

বিদেশী ক্রিকেটার: ক্রিস গেইল, এবি ডি ভিলিয়ার্স, অ্যালেক্স হেলস, রবি বোপারা, রিলে রুশো, বেনি হাওয়েল, শেলডন কটরেল এবং শন উইলিয়ামস।

ঢাকা ডায়নামাইটস, দেশি ক্রিকেটার: সাকিব আল হাসান (অধিনায়ক), শুভাগত হোম, রনি তালুকদার, নুরুল হাসান সোহান, রুবেল হোসেন, কাজী অনিক, মিজানুর রহমান, আসিফ হাসান, শাহাদাত হোসেন রাজীব, নাইম শেখ এবং মোহর শেখ অন্তর।

বিদেশী ক্রিকেটার: সুনিল নারাইন, রোভম্যান পাওয়েল, কাইরন পোলার্ড, আন্দ্রে রাসেল, হজরতউল্লাহ জাজাই, অ্যান্ড্র বার্জ এবং ইয়ান বেল।

রাজশাহী কিংস, দেশি ক্রিকেটার: মুমিনুল হক, মেহেদি হাসান মিরাজ (অধিনায়ক), মোস্তাফিজুর রহমান, জাকির হাসান, আলাউদ্দিন বাবু, আরাফাত সানি, ফজলে রাব্বি, সৌম্য সরকার, , মার্শাল আইয়ুব, কামরুল ইসলাম রাব্বি।

বিদেশী ক্রিকেটার: ক্রিস্টিয়ান জাঙ্কার, রায়ান টেন ডেসকাট, সেকুগে প্রশন্ন, কায়েস আহমেদ, ইসুরু উদানা, লরি ইভেনস এবং মোহাম্মদ হাফিজ।

সিলেট সিক্সার্স, দেশি ক্রিকেটার: নাসির হোসেন, সাব্বির রহমান, লিটন কুমার দাস, আফিফ হোসেন ধ্রুব, তাসকিন আহমেদ, মোহাম্মদ আল আমিন হোসেন, তৌহিদ হৃদয়, নাবিল সামাদ, এবাদত হোসেন, অলক কাপালি, জাকির আলী অনিক এবং মেহেদি হাসান রানা।

বিদেশী ক্রিকেটার: সোহেল তানভির, ডেভিড ওয়ার্নার, সন্দীপ লামিচানে, মোহাম্মদ ইরফান, গুলবাদিন নাইব, আন্দ্রে ফ্লেচার, ইমরান তাহির, নিকোলাস পুরান এবং মোহাম্মদ নওয়াজ।

খুলনা টাইটানস, দেশি ক্রিকেটার: মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ (অধিনায়ক), আরিফুল হক, নাজমুল হোসেন শান্ত, মোহাম্মদ আল আমিন, তাইজুল ইসলাম, শরিফুল ইসলাম, জহুরুল ইসলাম অমি, শুভাশিষ রায়, জুনায়েদ সিদ্দিকী, তানভীর ইসলাম এবং মাহিদুল ইসলাম অঙ্কন।

বিদেশী ক্রিকেটার: কার্লোস ব্র্যাথওয়েট, ডেভিড মালান, আলী খান, জহির খান, লাসিথ মালিঙ্গা, ইয়াসির শাহ, পল স্টার্লিং, ডেভিড উইস এবং ব্রেন্ডন টেলর।

কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানস, দেশি ক্রিকেটার: তামিম ইকবাল (অধিনায়ক), ইমরুল কায়েস, মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন, আবু হায়দার রনি, এনামুল হক বিজয়, মেহেদি হাসান, জিয়া-উর রহমান, মোশরারফ হোসেন রুবেল, মোহাম্মদ শহীদ, শামসুর রহমান শুভ এবং সঞ্জিত সাহা।

বিদেশী ক্রিকেটার: শোয়েব মালিক, স্টিভেন স্মিথ, লিয়াম ডসন, শহিদ আফ্রিদি, থিসারা পেরেরা, এভিন লুইস, ওয়াকার সালমা খাই এবং আমের ইয়ামিন।

চিটাগং ভাইকিংস, দেশি ক্রিকেটার: মুশফিকুর রহীম, সানজামুল ইসলাম, নাঈম হাসান, সৈয়দ খালেদ আহমেদ, আহমেদ আবু জায়েদ রাহি, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত, মোহাম্মদ আশরাফুল, রবিউল হক, ইয়াসির আলী চৌধুরী রাব্বি, নিহাদুজ্জামান, সাদমান ইসলাম।

বিদেশী ক্রিকেটার: সিকান্দার রাজা, লুক রনকি, মোহাম্মদ শাহজাদ, নজিবুল্লাহ জাদরান, রবি ফ্রাইলিংক, ক্যামেরন ডেলপোর্ট এবং দাসুন শানাকা।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here