বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) ষষ্ঠ আসরের উদ্বোধনী ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছে হয়েছে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন মাশরাফি বিন মর্তুজার রংপুর ও মুশফিকের চিটাগং ভাইকিংস। এদিন টসে জিতে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয় মুশফিকের বাহিনী। চিটাগং ভাইকিংসের বিপক্ষে মাত্র ৯৮ রানে গুটিয়ে যায় মাশরাফি বিন মুর্তজার দল। ৯৯ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে ৫ বল হাতে রেখেই ৩ উইকেটে জয় পায় মুশফিকের চিটাগাং ভাইকিংস।

জয়ের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে দলীয় ১৯ রানেই দুই উইকেট হারায় চিটাগং। ব্যক্তিগত ৮ রানে ফেরেন ক্যামেরন দেলপোর্ট, মোহাম্মদ আশরাফুল ফেরেন ব্যক্তিগত ৩ রানে। এরপর ব্যাট হাতে ঝড় তোলেন মোহাম্মদ শাহজাদ। তবে ৫১ রানে এলবির শিকার হয়ে ফেরেন ডানহাতি এই ব্যাটসম্যান।

এরপর অধিনায়ক মুশফিকুর রহিমের সঙ্গে জুটি গড়ার চেষ্টা করলেও ভুল বোঝাবুঝির কারণে রানআউট হয়ে ব্যক্তিগত ৩ রানে ফেরেন সিকান্দার রাজা। আর দলীয় ৬২ রানে ব্যক্তিগত ২ রানে ফেরেন মোসাদ্দেক হোসেন।

এরপর দলীয় ৭৭ রানে নাঈম হাসানকে ১০ রানে বোল্ড করে ফেরান মাশরাফি। আর দলীয় ৮৫ রানে ব্যক্তিগত ২৫ রানে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন মুশফিক। এরপর রব্বি ফ্রাইকিঙ্কের সঙ্গে ব্যাটিংয়ে আসেন সানজামুল ইসলাম। দু’জন মিলিয়ে দলকে জয়ের বন্দরে পৌঁছে দেন (১০১/৭)। ফ্রাইলিঙ্ক ১২ ও সানজামুল ৮ রানে অপরাজিত থাকেন।

রংপুরের হয়ে মাশরাফি ২টি উইকেট নেন। এছাড়াও শফিউল, নাজমুল ইসলাম, ফরহাদ রেজা ও বেনি হাওয়েল ১টি করে উইকেট পান।

এর আগে টস হেরে শুরুতে ব্যাট করতে নেমে দলীয় ৩৫ রানেই ৭ উইকেট হারায় গতবারের চ্যাম্পিয়নরা। এরপর সোহাগ গাজীকে সঙ্গে করে দলের হাল ধরেন রবি বোপারা। তবে দলীয় ৮৪ রানে ব্যক্তিগত ২১ রান নিয়ে সোহাগ গাজী পেরার পর ম্যাচ আর বেশিদূর গড়ায়নি। ইংনিস সর্বোচ্চ ৪৪ রান খেলে দলীয় ৯৫ রানে ফেরেন বোপারা। আর শেষ বলে রানআউট হয়ে নাজমুল ইসলাম ফেরেন ব্যক্তিগত ৪ রানে। তাতেই রংপুরের সংগ্রহ দাঁড়ায় ৯৮ রান।

চিটাগংয়ের রব্বি ফ্রাইলিঙ্ক ৪ ওভারে ১৪ রান দিয়ে সর্বোচ্চ ৪ উইকেট নেন। এছাড়াও দুটি করে উইকেট নেন আবু জায়েদ রাহী ও নাঈম হাসান। আর একটি উইকেট নেন খালেদ আহমেদ।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here