রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের মরদেহে শ্রদ্ধা জানিয়েছেন।

রোববার সকালে সংসদ ভবনের দক্ষিণ প্লাজায় আওয়ামী লীগের সাবেক এ সাধারণ সম্পাদকের প্রথম জানাজা শেষে এই শ্রদ্ধা জানান তারা। এসময় স্পিকার শিরিন শারমিন চৌধুরী, মন্ত্রিপরিষদের সদস্য ও আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরাও তার মরদেহের প্রতি শ্রদ্ধা জানান। এর আগে তাকে সর্বোচ্চ রাষ্ট্রীয় সম্মাননা জানানো হয়।

রোববার সকালে রাজধানীর সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালের (সিএমএইচ) হিমঘর থেকে তার মরদেহ সংসদ ভবনে নেয়া হয়। এরপর সাড়ে ১০টার দিকে জাতীয় সংসদের দক্ষিণ প্লাজায় তার প্রথম জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। জানাজায় অংশগ্রহণ করেন রাষ্ট্রপতি, আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীসহ বিশিষ্টজনরা।

সংসদ ভবন থেকে সৈয়দ আশরাফের মরদেহ তার সংসদীয় এলাকায় (কিশোরগঞ্জ-১ আসনে) নেয়া হবে। সেখানে শোলাকিয়া ঈদগাহ ময়দানে দ্বিতীয় জানাজা অনুষ্ঠিত হবে। কিশোরগঞ্জ থেকে আশরাফের মরদেহ নেয়া হবে তার জন্মস্থান ময়মনসিংহে। ময়মনসিংহে তৃতীয় জানাজার পর বিকেলে তার মরদেহ ঢাকায় আনা হবে। এরপর বনানী কবরস্থানে বাদ আসর তাকে দাফন করা হবে।

প্রসঙ্গত, থাইল্যান্ডের বামরুনগ্রাদ হাসপাতালে ক্রিটিক্যাল কেয়ার মেডিসিন ইউনিটে চিকিৎসারত অবস্থায় বৃহস্পতিবার (৩ ডিসেম্বর) মৃত্যুবরণ করেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক, বর্তমান প্রেসিডিয়াম সদস্য ও জনপ্রশাসন মন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৬৮ বছর।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here