পুত্র সন্তানের মা হওয়ার পর থেকেই বদলে গেছেন সানিয়া মির্জা। ব্যাপারটি এরইমধ্যে স্বীকারও করেছেন ভারতের এ টেনিস তারকা। তবে তার মন ঠিকই পড়ে রয়েছে কোর্টে। ২০২০ সালে ফেরার কথাও জানিয়েছিলেন চেনা রুপে। কিন্তু না। এ বছরের শেষেই তাকে দেখা যাবে টেনিসে।

সন্তানের মা হওয়ার পর টেনিসে আগের সেই জায়গা ফিরে পাওয়া সানিয়ার জন্য বেশ কষ্টকরই হবে। ব্যাপারটি নিজেও জানেন তিনি। তাই বলে দমে যেতে চান না ভারতের এ তারকা। এরইমধ্যে ফেরার প্রস্তুতিও শুরু করেছেন বলে জানিয়েছেন ৩২ বছর বয়সী সানিয়া, ‘অনেক দিন থেকেই আমি একজনের স্ত্রী। সদ্য মা-ও হলাম। খুব চেষ্টা করব আবার নিজের টেনিসকে সেরা জায়গায় নিয়ে যাওয়ার। জানি কাজটা সহজ নয়। তবে এটাও জানি যে, কঠোর পরিশ্রম করলে তার ফল পাওয়া যায়।’

সানিয়া আরও বলেছেন, ‘নিজের জন্য অবাস্তব কোনও লক্ষ্য রাখছি না। আপাতত টেনিসে ফেরার চেষ্টাই করব। হয়তো এ বছরের শেষেই সেটা হতে যাচ্ছে। আগে অবশ্য বলেছিলাম, ২০২০ সালে টেনিসে ফিরব। তার কারণও ছিল। অবশ্য এই ফেরার জন্য নিজেকে চাপে ফেলার পক্ষপাতী নই আমি।’

পরিবারের নতুন অতিথির আগমণে অন্য কিছুতে আর প্রাধান্য দেওয়া যায় না। ব্যাপারটি সানিয়ার ক্ষেত্রেও ঘটেছে। তবে ধীরে ধীরে এ টেনিস তারকা চেষ্টা করছেন আগের জায়গায় ফিরতে, ‘বাড়িতে কোনও শিশুর আগমন ঘটলে জীবনটাই যেন বদলে যায়। তখন আর সর্বক্ষেত্রে নিজেকেই অগ্রাধিকার দেওয়া যায় না। আমরা খেলোয়াড়রা সারা জীবন ধরেই যেন একটু হলেও স্বার্থপর। কিন্তু মা হওয়ার পরে আর সেটা থাকে না।’

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here