ইহুদিবাদী ইসরাইলের জঙ্গিবিমান লেবাননের আকাশসীমায় অনুপ্রবেশ করে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের ১৭০১ নম্বর প্রস্তাব লঙ্ঘন করেছে বলে জানিয়েছে দক্ষিণ লেবাননে মোতায়েন জাতিসংঘ শান্তিরক্ষী বাহিনী- ইউনিফিল।

ইউনিফিলের মুখপাত্র আন্দ্রিয়া টেনেন্টি এ তথ্য জানিয়ে বলেছেন, লেবানন ও ইসরাইলের সীমান্ত এলাকার পরিস্থিতির ওপর গভীর নজর রেখেছে ইউনিফিল।

শুক্রবার রাতে সিরিয়ার রাজধানী দামেস্কের আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে হামলা চালায় ইসরাইলি জঙ্গিবিমান। এসব বিমান সিরিয়ার আকাশ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থার চোখ ফাঁকি দেয়ার জন্য লেবাননের আকাশসীমা দিয়ে সিরিয়ায় প্রবেশ করে বলে খবর প্রকাশিত হয়েছে।

ইহুদিবাদী বিমানের লেবাননের আকাশসীমা লঙ্ঘন সংক্রান্ত সমস্যা সমাধানের জন্য এই বাহিনীর কর্মকর্তারা তেল আবিবের সঙ্গে আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছেন বলে ইউনিফিলের মুখপাত্র জানান। নিরাপত্তা পরিষদের ১৭০১ নম্বর প্রস্তাব লঙ্ঘনের জের ধরে লেবাননের সঙ্গে ইসরাইলের উত্তেজনা যাতে বেড়ে না যায় ইউনিফিল সে চেষ্টা করছে বলেও উল্লেখ করেছেন এই মুখপাত্র।

ইহুদিবাদী ইসরাইলি সেনারা ২২ বছরের দখলদারিত্বের অবসান ঘটিয়ে ২০০০ সালে দক্ষিণ লেবানন থেকে সরে যায়। তখন থেকে ইসরাইল ও লেবানন সীমান্তে সম্ভাব্য উত্তেজনা রোধ করার জন্য জাতিসংঘের শান্তিরক্ষী বাহিনী মোতায়েন করা হয়।

২০০৬ সালের ৩৩ দিনের যুদ্ধ শেষে ১৭০১ নম্বর প্রস্তাব অনুমোদন করে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদ। ওই প্রস্তাবে ইসরাইলের পক্ষ থেকে লেবাননের জল, স্থল ও আকাশসীমা লঙ্ঘনের ওপর কঠোর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়। কিন্তু লেবাননের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্প্রতি এক পরিসংখ্যান তুলে ধরে বলেছে, ২০১৮ সালে ১৪১৭ বার দেশটির সীমান্ত লঙ্ঘন করেছে তেল আবিব।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here