দেশের সংহতি রক্ষার জন্য কুর্দিদের দেয়া আলাচনার প্রস্তাবকে স্বাগত জানিয়েছে সিরিয়া সরকার। কয়েকদিন আগে কুর্দি কয়েকটি গ্রুপ রাশিয়ার মধ্যস্থতায় বাশার আল-আসাদ সরকারের সঙ্গে এমন আলোচনা অনুষ্ঠানের প্রস্তাব দিয়েছে।

সিরিয়া থেকে মার্কিন সেনা প্রত্যাহারের বিষয়ে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প সিদ্ধান্ত ঘোষণার পর কুর্দি গ্রুপগুলো রাশিয়ার মধ্যস্থতায় এমন আলোচনায় বসার আগ্রহ প্রকাশ করেছে। মার্কিন সেনারা কুর্দি গেরিলাদেরকে আশ্রয় ও মদদ দিয়ে আসছিল।

এ প্রসঙ্গে গতকাল (রোববার) সিরিয়ার সহকারী পররাষ্ট্রমন্ত্রী আয়মান সুসান সাংবাদিকদের বলেন, “আমরা আশা করি সংলাপের বিষয়টি জোরদার ও গতিশীল হবে। সিরিয়ার সংহতির প্রশ্নে কুর্দিদের অনেকগুলো বক্তব্য ইতিবাচক।”

আয়মান সুসান বলেন, “আমি খুবই আস্থাশীল যে, সংলাপের মাধ্যমে আমরা বেশকিছু দাবির মীমাংসা করতে পারব এবং এই সংলাপের মাধ্যমে সিরিয়ার সংহতি নিশ্চিত হবে।”

মার্কিন সেনা প্রত্যাহারের পর তুরস্ক সিরিয়ার কুর্দি গেরিলাদের ওপর সামরিক অভিযান চালাবে এবং এরইমধ্যে সীমান্তে সেনা বাড়িয়েছে। এ অবস্থায় কুর্দিরা সিরিয়া সরকারের সঙ্গে আপোশ-রফায় আসতে চাইছে। সিরিয়ার কুর্দি গেরিলাদেরকে তুরস্ক সরকার পিকেকে গেরিলাদের একটা শাখা বলে মনে করে। পিকেকে গেরিলারা যেমন তুরস্ক থেকে নিজেদের এলাকাকে স্বাধীন করতে চায় তেমনি সিরিয়ার কুর্দিরাও স্বাধীন ভূমি প্রতিষ্ঠার স্বপ্ন দেখে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here