এইবারের বিপক্ষে ৩-০ গোলে জিতেছে বার্সেলোনা। ন্যু ক্যাম্পে রবিবার জোড়া গোলের সঙ্গে অন্যটি বানিয়ে দিয়েছেন লুইস সুয়ারেস। কিন্তু এক গোল করেই শিরোনাম হলেন লিওনেল মেসি। প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে লা লিগায় ৪০০তম গোল করলেন আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড।

লা লিগায় টানা ষষ্ঠ জয়ে ১৯ ম্যাচে ৪৩ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে থাকল বার্সেলোনা। নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী অ্যাতলেতিকো মাদ্রিদের (৩৮) সঙ্গে আবারও ৫ পয়েন্টের ব্যবধান বাড়াল এরনেস্তো ভালভারদের দল

ম্যাচের শুরু থেকেই বল দখলের লড়াইয়ে এগিয়ে ছিল বার্সেলোনা। সে সুবাদে ১৯তম মিনিটে ফিলিপে কৌতিনহোর বাড়ানো বল ডি-বক্সে প্রথম ছোঁয়ায় নিয়ন্ত্রণে নিয়ে ডান পায়ের কোনাকুনি শটে দূরের পোস্ট দিয়ে গোল করে কাতালানদের এগিয়ে দেন সুয়ারেজ। এদিকে ম্যাচের ২৭তম মিনিটে এইবারের স্প্যানিশ ফরোয়ার্ড সের্হি এনরিখের হেড অল্পের জন্য লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়।

৪৩তম মিনিটে ডি-বক্সে প্রতিপক্ষের এক খেলোয়াড়ের বাঁধার কৌতিনহো পড়ে গেলে পেনাল্টির জোরালো আবেদন করে বার্সেলোনা। কিন্তু রেফারি সেই আবেদনে দেননি সাড়া।

বিরতির পর বার্সেলোনার ব্যবধান দ্বিগুন করেন মেসি। ৫২তম মিনিটে ডি-বক্সে সুয়ারেসের ছোট পাস ধরে কোনাকুনি একটু এগিয়ে দূরের পোস্ট দিয়ে গোল করেন এ আর্জেন্টিনার এ ফরোয়ার্ড। এরই সঙ্গে প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে স্পেনের শীর্ষ প্রতিযোগিতায় ৪০০ গোলের মাইলফলক স্পর্শ করেন আর্জেন্টিনা অধিনায়ক। এরপর ৫৫তম মিনিটে সতীর্থের ব্যাক-হিলে বল ধরে ডি-বক্সে ঢুকে গোল করার মতো জায়গা থেকে গোলরক্ষক বরাবর শট নেন মেসি।

মেসি গোল মিস করলেও কিছুক্ষণের মধ্যে এইবারের জালে আবারও বল জড়িয়ে বার্সেলোনার জয় প্রায় নিশ্চিত করেন সুয়ারেজ। সার্জিও রবের্তোর পাস ধরে ডি-বক্সে ডান দিকের দুরূহ কোণ থেকে বল ঠিকানায় পাঠান উরুগুইয়েন এ ফরোয়ার্ড। এরপর ম্যাচের শেষ দিক উসমান ডেম্বেলের পাসে গোল করার যথেষ্ট সুযোগ পেয়েছিলেন মেসি। কিন্তু বল ঠিকমত নিজের নিয়ন্ত্রণে নিতে পারেননি তিনি। তারপরও বড় জয় নিয়েই মাঠে ছাড়ে কাতালানরা।

এ জয়ে ৪৩ পয়েন্ট নিয়ে লা লিগার শীর্ষস্থান আরও মজবুত করল বার্সেলোনা। অ্যাথলেটিকো মাদ্রিদ ৫ পয়েন্ট কম নিয়ে আছে দ্বিতীয় স্থানে। সেভিয়া ৩৩ পয়েন্ট নিয়ে আছে তৃতীয় স্থানে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here