অভিনেত্রী কাজী নওশাবা আহমেদের স্থায়ী জামিন আবেদন মঞ্জুর করেছেন আদালত। ফেসবুকে গুজব ছড়ানোর অভিযোগে করা মামলায় মঙ্গলবার ঢাকা মহানগর হাকিম দিদার হোসাইন তার স্থায়ী জামিনের আবেদন মঞ্জুর করেন।

এ জন্য আজ আদালতে উপস্থিত হন কাজী নওশাবা। পরে তার আইনজীবী এএইচ ইমরুল হোসেন স্থায়ী জামিনের আবেদন করেন।

শুনানিতে তিনি বলেন, কাজী নওশাবা আজ পর্যন্ত এ মামলায় জামিনে আছেন। এর আগেও তিনি এ মামলায় দুবার অস্থায়ী জামিন নিয়েছেন। তিনি জামিনের কোনো শর্ত ভঙ্গ করেননি। অভিনয়ের কাজে তাকে ব্যস্ত থাকতে হয়। তাই তার স্থায়ী জামিনের আবেদন করছি।

এর পর বিচারক নওশাবাকে জিজ্ঞাসা করেন, ‘আপনার বিরুদ্ধে কি আর কোনো মামলা আছে?’ উত্তরে নওশাবা বলেন, ‘এ মামলা ছাড়া আর কোনো মামলা নেই।’ পরে বিচারক স্থায়ী জামিন আবেদন মঞ্জুর করেন।

অন্যদিকে মঙ্গলবার মামলার তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের দিন ধার্য ছিল। তবে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা (আইও) প্রতিবেদন দাখিল না করায় আদালত প্রতিবেদন দাখিলের জন্য আগামী ৩ মার্চ দিন ধার্য করেন।

প্রসঙ্গত, নিরাপদ সড়কের দাবিতে আন্দোলন চলাকালে ২০১৮ সালের ৪ আগস্ট রাজধানীর জিগাতলায় আন্দোলনকারীদের সঙ্গে অন্যপক্ষের সংঘর্ষ, ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। এতে ওই এলাকায় উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। ঘটনার ঘটার প্রায় সঙ্গে সঙ্গে ফেসবুক লাইভে আসেন নওশাবা।

লাইভে তিনি জানান, জিগাতলায় চারজনকে মেরে ফেলা হয়েছে, একজনের চোখ উপড়ে ফেলা হয়েছে। ওই সময় আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর পক্ষ থেকে জানানো হয়, ওইদিন জিগাতলায় এরকম কোনো ঘটনা ঘটেনি। সেদিন রাতেই গুজব সৃষ্টির অভিযোগে উত্তরা থেকে নওশাবা আহমেদকে আটক করে র‌্যাব। এরপর ২০১৮ সালের ২১ আগস্ট পাঁচ হাজার টাকা মুচলেকায় জামিনে মুক্তি পান নওশাবা।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here