রাশিয়া বিশ্বকাপে ষষ্ঠ শিরোপার লক্ষ্যে মাঠে নেমেছিল ব্রাজিল। কোয়ার্টার ফাইনাল থেকে বিদায় নিতে হয়েছিল নেইমার-কুতিনহো-ফিরমিনো-জেসুসদের। সেই বিশ্বকাপে আলোচনার চেয়ে সমালোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে ছিলেন নেইমার। মাঠে পড়ে গিয়ে গড়াগড়ি দিয়ে রেফারির দৃষ্টি ফিরিয়ে আনার যে নাটক করেছিলেন নেইমার সেটি নিয়ে কম কথা হয়নি।

এমনকি ব্রাজিলের কিংবদন্তি পেলে বিভিন্ন সময়েই বলেছিলেন, নেইমারের নাটুকেপনা আর ভালো লাগছে না। কিছুটা ক্ষোভের সুরেই পেলে বলেছিলেন, ‘নেইমারের সঙ্গে কথা হয়েছে আমার। ফুটবল খেলার পাশাপাশি সে মাঠে যা কিছু করে, সবকিছু নিয়েই। আমি তাকে মনে করিয়ে দিয়েছি সে বড় খেলোয়াড়, মাঠে তার গোলের দিকে মনোযোগ দেওয়া দরকার। তাই মাঠে এমন কিছু কোরো না, যাতে সেই প্রতিভার অসম্মান করা হয়।’

পেলে আরও বলেছিলেন, নেইমারের মনোযোগ যদি ডাইভ দেওয়ার দিকেই থাকে, তাহলে তাকে সমালোচনা থেকে রক্ষা করাটা বেশ কষ্টকর হয়ে দাঁড়ায়। সে মাঠে নাটুকেপনা করছে, ফাউলের দাবী জানাচ্ছে এমনকি রেফারির সঙ্গে মাঠেই বাকবিতণ্ডায় জড়াচ্ছে। এসব তার ইমেজকেই ক্ষতিগ্রস্থ করছে।

প্রায় দেড় মাস পর পেলের সমালোচনা নিয়ে মুখ খুলেছেন নেইমার। ফ্রেঞ্চ সংবাদমাধ্যম ক্যানালকে নেইমার জানান, ‘পেলের সমালোচনা? আমার কাছে সেগুলো বেশ কৌতূহলোদ্দীপক মনে হয়েছে। যখন আপনি কিছু জিততে ব্যর্থ হবেন, সমালোচনা শুরু হবে। আমি বিশ্বকাপে মোটেও অভিনয় করিনি। আমি ফাউলের শিকার হয়েছি। আজ মানুষ এ নিয়ে অনেক কথা বলছে কারণ এটা নেইমারের বিষয়। আমার ব্যাপারে সবকিছুই বাড়িয়ে বলা হয়। আমি পেলের সমালোচনাকে সম্মান জানাই, তবে আমার কিছু যায় আসে না।’

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here