৩০ ডিসেম্বর একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পর আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে গঠিত হয়েছে নতুন সরকার। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) চেয়ারপারসন হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন।

মঙ্গলবার শেরে বাংলা নগর এনইসি সম্মেলন কক্ষে নতুন সরকারের প্রথম একনেক সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সভায় ১ হাজার ৮৯৩ কোটি টাকা ব্যয়ে ৮ প্রকল্পের অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

সভাশেষে পরিকল্পনা মন্ত্রী এম এ মান্নান বলেন, ৮ প্রকল্প অনুমোদনের মধ্য দিয়ে নতুন সরকারের যাত্রা শুরু হলো। আমরা উন্ময়নের তীর্থযাত্রা শুরু করলাম। আমাদের মূল উদ্দেশ্য দেশের উন্নয়ন করা। উন্নয়নের গতি আরো বাড়াতে চাই। এখন প্রবৃদ্ধি ৭ দশমিক ৮৬ শতাংশ, এটাকে আমরা ৮ ও ৯ শতাংশ নিয়ে যাবো।

সভায় সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, খাদ্যমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক, তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ, স্থানীয় সরকার মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম, শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি, শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ুন, স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক, বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি, গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রী শ. ম. রেজাউল করিম, পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রী মো. শাহাব উদ্দিন উপস্থিত ছিলেন।

একনেক সভায় যাত্রাবাড়ী (মেয়র হানিফ ফ্লাইওভার)-ডেমরা (সুলতানা কামাল সেতু) মহাসড়ক ৪ লেনে উন্নীতকরণ নামের প্রকল্পটি অনুমোদন দেওয়া হয়। এছাড়া একনেক সভায় ‘পিপিআর রোড নির্মূল এবং ক্ষুরারোগ নিয়ন্ত্রণ’, ‘দারিদ্র্য বিমোচনের লক্ষ্যে পুষ্টি সমৃদ্ধ শস্য উৎপাদন ও বাজারজাতকরণ’ প্রকল্প অনুমোদন দেওয়া হয়। বিদ্যমান সাতটি টেক্সটাইল ভোকেশনাল ইনস্টিটিউটের উন্নয়ন ও নতুন ছয়টি টেক্সটাইল ভোকেশনাল ইনস্টিটিউট স্থাপন প্রকল্পও মঙ্গলবারের সভায় অনুমোদন দেওয়া হয়।

এছাড়াও বাংলাদেশ লোক ও কারুশিল্প ফাউন্ডেশনের জাদুঘর ভবন সম্প্রসারণ এবং অন্যান্য ভৌত অবকাঠামো নির্মাণ প্রকল্প অনুমোদন দেওয়া হয়।

একনেক সভায় ‘গোপালগঞ্জ বিসিক শিল্পনগরী সম্প্রসারণ’, ‘নেত্রকোণা জেলার সংযোগ সড়ক নির্মাণ’, ‘গোবিন্দগঞ্জ-ছাতক-দোয়ারাবাজার’ সড়কে ৯টি আরসিসি গার্ডার সেতু নির্মাণ প্রকল্প অনুমোদন দেওয়া হয়।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here