যাত্রীদের বিনোদনের জন্য কোনও প্রমোদতরী বা বিলাশবহুল জাহাজে কী কী সুবিধা থাকতে পারে? সুইমিং পুল, বাগান, পানশালা, রেস্তোরাঁ, রাজকীয় স্যুট, হেলিপ্যাড আর… ভাবছেন আর কী থাকতে পারে! যদি বলি যাত্রীদের বিনোদনের জন্য জাহাজে একটা আস্ত বিচ-ও রয়েছে!

এখন কিছুই আর অসম্ভব নয়। নরওয়ের বিখ্যাত ইন্টিরিয়র ডিজাইন সংস্থা ‘হেরেড ডিজাইন’-এর তৈরি প্রমোদতরীটির নাম ১০৮এম। এটি একটি বিলাশবহুল ইয়াট। লম্বায় ১০৮ মিটার (প্রায় ৩৫৪ ফুট)। এই ইয়াটে কৃত্তিম সি বিচের সঙ্গে যে কোনও সাধারণ বিচের পার্থক্য হল, এটি মাঝ সমুদ্রে ভাসমান বিচ। এই ইয়াটের পিছনের দিকে এই বিচ তৈরি করার জন্য জাহাজের পিছন দিকটা নিচু করে সমুদ্রের পানির সঙ্গে মিশিয়ে দেওয়া হয়েছে।

ইয়াটে বিনোদনে শক্তি যোগাবে ৩ হাজার বর্গফুটের সোলার প্যানেল। ইয়াটের দোতলায় রয়েছে একটি খোলামেলা সাজানো বাগান, একটি সুইমিং পুল। এ ছাড়াও এই ইয়াটে যাত্রী স্বাচ্ছন্দের জন্য কাঁচে মোড়া বিশাল মাপের একটি হল ঘর, যেখানে রয়েছে পানশালা, রেস্তোরাঁর মতো একাধিক আয়োজন। রয়েছে একটি হেলিপ্যাডও। আর কী চাই বলুন!

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here