রিয়াল মাদ্রিদে থাকাকালীন কর ফাঁকির দায়ে স্পেনের রাজধানী মাদ্রিদের একটি আদালতের দেওয়া ১ কোটি ৮৮ লাখ ইউরো জরিমানা ও ২৩ মাসের স্থগিত কারাদণ্ড মেনে নিয়েছেন পর্তুগিজ তারকা ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো।

সোমবার রাতে ইতালিতে বর্তমান ক্লাব জুভেন্তাসের হয়ে মাঠে নেমেছিলেন রোনালদো। রাত পেরোতেই মঙ্গলবার বান্ধবী জর্জিনা রদ্রিগেজকে নিয়ে মাদ্রিদের একটি আদালতে উপস্থিত হন তিনি। সেখানে তাকে দেওয়া শাস্তি মেনে নেন পাঁচ বারের ব্যালন ডি’অর জয়ী ফুটবলার।

মূলত আদালত ও স্পেনের সংশ্লিষ্ট কর কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আগেই সমঝোতায় পৌঁছেছিলেন ৩৩ বছর বয়সী রোনালদো। ফলে জরিমানা ও স্থগিত কারাদণ্ডের শাস্তির আনুষ্ঠানিকতা সারতেই তিনি উপস্থিত হন আদালতের সামনে। আর অল্প সময়ের মধ্যেই শেষ হয় আনুষ্ঠানিকতা।

আদালত প্রাঙ্গণে গণমাধ্যমের ব্যাপক উপস্থিতি থাকলেও তাতে ভাবান্তর ছিল না রোনালদোর। বান্ধবীর সঙ্গে বেশ হাস্যোজ্জ্বল অবস্থায় ছিলেন তিনি। বৃদ্ধাঙ্গুলি উঁচু করে তিনি ইঙ্গিতও দেন ‘সবকিছু ঠিক আছে’।

স্পেনের নিয়ম অনুসারে, অপরাধ সহিংস না হলে এবং দুই বছর বা তার নিচে সাজা হলে, প্রথম অপরাধের ক্ষেত্রে সেখানে কারাবাস করতে হয় না। তবে জরিমানার ১ কোটি ৮৮ লাখ ইউরো তাকে ঠিকই পরিশোধ করতে হবে।

২০১৭ সালে রোনালদোর বিপক্ষে কর ফাঁকির এই অভিযোগটি আনা হয়েছিল। সেখানে উল্লেখ করা হয়েছিল, ২০১১-২০১৪ সালের মধ্যে ১ কোটি ৪৭ লাখ ইউরো কর ফাঁকি দিয়েছিলেন তিনি। যদিও তখন রোনালদো তার বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ অস্বীকার করেছিলেন।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here