দরজায় কড়া নাড়ছে ওয়ার্ল্ড কাপ। তার আগে নিউ জিল্যান্ড এবং আয়ারল্যান্ড সফর করবে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। সে কারণেই এখন থেকেই ওয়ার্ল্ড কাপের কথা মাথায় রেখে দল গঠনের ভাবনা বাংলাদেশ টিম ম্যানেজমেন্টের।

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) চলমান আসরে ক্রিকেটারদের পারফরমেন্সকে বিবেচনায় আনতে হচ্ছে নির্বাচকদের। তবে বিপিএলের মাঝপথে দাঁড়িয়ে কজন ক্রিকেটারের পারফরমেন্স মনে ধরেছে বাংলাদেশ ওয়ানডে অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা এমপির।

এক সময়ে নতুন বলের পার্টনার তাসকিনের সঙ্গে জুটিটা ভেঙ্গে গেছে ১৬ মাস। বোলিং অ্যাকশনে পরিবর্তন এনে নিজেকে হারিয়ে ফেলেছিলেন তাসকিন। ফেরার মঞ্চ হিসেবে বিপিএলের চলমান আসরকে সিরিয়াসলি নিয়েছেন। সিলেট সিক্সার্সের এই পেস বোলার ইতোমধ্যে শিকার করেছেন ৭ ম্যাচে ১৪ উইকেট। যার মধ্যে ২টি চার উইকেটের ইনিংস। সর্বশেষ ওয়ার্ল্ড কাপে বাংলাদেশ দলের বিস্ময়কর সাফল্যের নেপথ্যে তিন পেস বোলারের মধ্যে অন্যতম ছিলেন তাসকিন। ওই আসরে তার ৯ উইকেট বাংলাদেশ দলকে দারুণ কিছুর স্বপ্ন পূরণে হয়েছে সহায়ক। বিপিএলে সেই তাসকিনের দারুণ প্রত্যাবর্তন, রংপুর রাইডার্সের টিমমেট পেস বোলার শফিউলের বোলিং ধারাবাহিকতা (৮ ম্যাচে ১৩ উইকেট ) মুগ্ধ করেছে মাশরাফিকে। মঙ্গলবার সংবাদ সম্মেলনে সেই মুগ্ধতার কথা শুনিয়েছেন- ‘আমার মনে হয় তাসকিন ভালো করছে, শফিউল ভালো করছে।’

সিলেটে রংপুর রাইডার্সের বিপক্ষে সিলেট সিক্সার্সের সাব্বিরের ৫১ বলে ৫ চার ৬ ছক্কায় ৮৫ রানের ইনিংসটা দেখেছেন মাশরাফি খুব কাছ থেকে। মাঠের বাইরের ঘটনায় আলোচিত-সমালোচিত সাব্বির গত বছরের জুলাইয়ের পর বাংলাদেশ দলের বাইরে। বিপিএলের চলমান আসরের পারফরমেন্সে ফেরার দাবিটা তুলেছেন সাব্বির, এমনটা মনে করছেন মাশরাফি- ‘একটা ম্যাচে সাব্বির ভালো করেছে। ও যদি এখন পারফর্ম করে যেতে পারে, তাহলে সুযোগ আছে।’

সাব্বিরের কাছ থেকে বড় কিছুর প্রত্যাশা করছেন মাশরাফি- ‘শেষ ম্যাচে আমাদের সাথে সেই ইনিংসটা খেলেছে, ওকে যখন জাতীয় দলে নেয়া হয়েছিল, ওর যে সামর্থ্য আছে এই টাইপের ক্রিকেট খেলতে পারা। ওর থেকে আসলে হোপ অনেক। আশা করি ও কন্টিনিউ করবে।’

বাংলাদেশ দলে বড় ধরনের পরিবর্তনের সুযোগ আছে, অবস্থাদৃষ্টে এমনটাই দেখছেন মাশরাফি। এমন সম্ভাবনায় ফেরার সম্ভাবনা সাব্বির এবং মোসাদ্দেকের মধ্যে একজনের মধ্যে দেখতে পাচ্ছেন বাংলাদেশ ওয়ানডে অধিনায়ক- ‘টপ অর্ডার থেকে ছয় নম্বর পর্যন্ত দেখেন তাহলে মনে হয় বিরাট চেইঞ্জের সুযোগ আছে। হয়তো এক্সট্রা বোলার, দুজন এক্সট্রা ব্যাটসম্যান নিয়ে যাওয়ার ক্ষেত্রে ওদের নিয়ে যাওয়ার সুযোগ থাকতে পারে। এখানে এক্সট্রা ব্যাটসম্যানের ক্ষেত্রে সাব্বির আছে, মোসাদ্দেক আছে। ওদের মধ্যে যে ভালো করে তাদের চান্স বাড়বে।’

তরুণ দীর্ঘদেহী অফ স্পিনার নাইম হাসান টেস্ট অভিষেকে বাজিমাৎ করেছেন। বিপিএলে চিটাগং ভাইকিংসের এই স্পিনারের মিতব্যয়ী বোলিংকেও (ওভারপ্রতি খরচা ৫.২২) বিবেচনার আনতে চান মাশরাফি- ‘সাকিবের অল্টারনেট একজন স্পিনার, অপু আছে, নাইম ভালো করছে। এমন কজন সুযোগ আছে আমার মনে হয়। কিছু কিছু জায়গায় ব্যাক আপের জন্য ফাঁকা আছে। এখন ডিপেন্ড করছে ওরা কেমন পারফর্ম করে।’ নিউজিল্যান্ড সফরগামী দল ঘোষণার ২৪ ঘণ্টা আগে এ বার্তাই দিয়ে গেলেন মাশরাফি।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here