মিশরে একটি টেলিভিশন অনুষ্ঠানে সমকামী একজনের সাক্ষাৎকার প্রচারের অভিযোগে অনুষ্ঠানটির উপস্থাপক মোহাম্মদ আল ঘেইতিকে কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত। দেশটির রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যমে আল আহরামের ওয়াবসাইটে খবরটি প্রকাশ করা হয়।

সমকামিতা প্রসারে সহযোগিতা করা এবং ধর্মীয় অবমাননার অপরাধে গত রোববার মোহাম্মদ আল ঘেইতিকে ১২ মাসের কারাদণ্ড দেয়া হয়। পাশাপাশি তাকে ৩ হাজার মিশরীয় পাউন্ড (১৬৭ ডলার) জরিমানা করা হয়। এছাড়া শাস্তি ভোগ করার পর এক বছর তাকে নজরদারিতে রাখারও আদেশ দেয়া হয়।

অবশ্য গিজার একটি আদালতের দেয়া এই রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করতে পারবেন মোহাম্মদ ঘেইতি। আইনজীবী সামির সাবরির করা অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে তাকে এই শাস্তি দেয়া হয়। সামির সাবরি এর আগেও বিভিন্ন সেলিব্রিটির বিরুদ্ধে মামলা করে আলোচনায় এসেছিলেন।

যদিও মোহাম্মদ আল ঘেইতি বিভিন্ন সময়ে সমকামীতার বিরুদ্ধে তার মতামত ব্যক্ত করেছিলেন। কিন্তু ২০১৮ সালের আগস্টে বেসরকারি এলটিসি টিভিতে ‘ওয়েক আপ’ নামে একটি অনুষ্ঠানে তিনি সমকামী একজন যৌন কর্মীর সাক্ষাৎকার প্রচার করেন। সেটিই তার জন্য কাল হয়ে দাঁড়ায়।

মিশরের আইনে সমকামীতাকে অপরাধ হিসেবে উল্লেখ করা না হলেও প্রায়ই সমকামী সম্প্রদায়ের মানুষজনকে গ্রেপ্তার করা হয়। এছাড়া তাদের বিরুদ্ধে পতিতাবৃত্তি ও ব্যভিচারীতে লিপ্ত থাকারও অভিযোগ আনা হয়।

এদিকে ফরাসি বার্তা সংস্থা এএফপি জানায়, মিশরের গণমাধ্যম নিয়ন্ত্রক সংস্থা এলটিসি টিভিকে দুই সপ্তাহের জন্য বন্ধ করে দিয়েছে।

আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থা অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালের একজন মুখপাত্র জানান, মিশরের আদালতের সাম্প্রতিক এই রায় বিপদজনক একটি বার্তা প্রদান করছে। এটি মত প্রকাশের স্বাধীনতা, সমকামী সম্প্রদায় এবং মিশরের বৈচিত্র্যময় সমাজের উপর আঘাতস্বরূপ।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here