সৌন্দর্য ধরে রাখতে নিয়মিত ত্বকের সঠিক যত্ন নেওয়া প্রয়োজন। তবে ত্বকের অতিরিক্ত লোম আমাদের সৌন্দর্যে অন্তরায় হয়ে দাঁড়ায়। তাই প্রয়োজন হয়ে পড়ে ওয়্যাক্সিং বা শেভিংয়ের। কিন্তু অনেকের মনেই একটা প্রশ্ন ঘোরাফেরা করে, ত্বকের জন্য কোনটা বেশি ভালো— ওয়্যাক্সিং না শেভিং?

আসুন জেনে নেওয়া যাক এর উত্তর…

১) শেভিংয়ে ব্যথা কম হয়। ওয়্যাক্সিং খুব বেদনাদায়ক।

২) শেভিং সময়সাপেক্ষ। ওয়্যাক্সিংয়ে সময় অপেক্ষাকৃত অনেক কম লাগে।

৩) শেভিংয়ে ত্বক শুষ্ক হয়ে যায়, র‌্যাশ বের হয়, লোমও ধীরে ধীরে মোটা হতে থাকে। ওয়্যাক্সিং করলে গোড়া থেকে লোম উঠে আসে। ফলে কয়েক সপ্তাহ ত্বক থাকে লোমহীন, কোমল।

৪) ওয়্যাক্সিং করলে ত্বক পুড়ে যেতে পারে, কালচে ছোপ পড়তে পারে। নষ্ট হয়ে যেতে পারে ত্বকের নমনীয়তা। শেভিংয়ের সময় ময়েশ্চারাইজর ব্যবহার করলে ত্বক পুড়ে যাওয়া বা ত্বকে কালচে ছোপ পড়ার তেমন কোনও সম্ভাবনা নেই।

৫) বাজার চলতি সস্তার যে কোনও ওয়্যাক্স স্ট্রিপস ব্যবহার করা একেবারেই উচিত নয়। খুব ভাল রেজার হলেও সেটা দিয়ে ২-৩ বারের বেশি ব্যবহার না করাই ভাল।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here