বিপিএলে ঢাকা পর্বে এই চিটাগং ভাইকিংসকে বড় লক্ষ্য দিয়েও জয়ের দেখা পায়নি রাজশাহী কিংস। এবার চট্টগ্রামে এসে রানের পাহাড় গড়ে জয় তুলে নিয়েছে মিরাজের দল। ১৯৯ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে ৮ উইকেটে ১৯১ রান করতে পেরেছে চিটাগং। তাতে দুই ম্যাচ পর ৭ রানের জয় পেলো রাজশাহী কিংস।

কিংসের জয়ের ফলে সেরা চারের লড়াইটা এখন জমে উঠেছে। ৯ ম্যাচে ১২ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষেই আছে চিটাগং। ঢাকা ও কুমিল্লার ৮ ম্যাচে ১০ পয়েন্ট, রংপুরেরও ৯ ম্যাচে সংগ্রহ সমান। আজকে জিতে ১০ ম্যাচে ১০ পয়েন্ট নিয়ে অবস্থান করছে রাজশাহী কিংসও। তলানীতে থাকা সিলেটের সংগ্রহ ১০ ম্যাচে ৮, খুলনার সংগ্রহ ১০ ম্যাচে ৪ পয়েন্ট।

বিপিএলে শনিবারের দ্বিতীয় ম্যাচে চট্টগ্রাম জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে নাটকীয় ম্যাচে স্বাগতিকদের ৭ রানে হারাল রাজশাহী। টসে হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৮ উইকেটে ১৯৫ রান তুলেছিলেন মেহেদী হাসান মিরাজরা। জবাবে পুরো ওভার খেললেও মুস্তাফিজের ভেলকিতে মুশফিকুর রহীমের চিটাগংকে থামতে হয় ৮ উইকেটে ১৯১ রানে।

৫ উইকেট হাতে নিয়ে শেষ ৩ ওভারে জয়ের জন্য চিটাগংয়ের দরকার ছিল ২৭ রান। ফলে জয়ের পাল্লা ভারী ছিল তাদের দিকেই। তবে মুস্তাফিজ ম্যাজিকে জয় অধরাই থাকল তাদের। ১৮তম ওভারে তিনি দেন মোটে ৬ রান। পরের ওভারে কামরুল ইসলাম রাব্বি ৮ রান দিলেও শেষ বলে ফেরান ৯ বলে ১১ রান করা নাজিবউল্লাহ জাদরানকে।

এরপর শেষ ওভারে ১৩ রানের সমীকরণ চিটাগংকে মেলাতে দেননি কাটার মাস্টার। প্রথম বলেই তুলে নেন বিপজ্জনক রাজাকে। ১৫ বলে ২৯ রান করে বোল্ড হয়ে ফিরে যান তিনি। পরের ৩ বলে আসে মোটে ৪ রান। ২ বলে চাই ৯ রান- এমন অবস্থায় ওভারের পঞ্চম বলে একই কায়দায় রবিউল হকের স্ট্যাম্পও উপড়ে দেন দ্য ফিজ। তাতে ৭ রানের রুদ্ধশ্বাস জয় পেল রাজশাহী।

এর আগে গেল ১৩ জানুয়ারি দুর্দান্ত বোলিংয়ে রংপুর রাইডার্সের বিপক্ষে রাজশাহীকে জিতিয়েছিলেন মুস্তাফিজ। ওই ম্যাচের শেষ ওভারে রংপুরের দরকার ছিল ৯ রান। তবে বিশেষজ্ঞ ডেথ বোলার মুস্তাফিজ সেদিন দিয়েছিলেন মোটে ৩ রান। দলকে উপহার দিয়েছিলেন ৫ রানের অবিশ্বাস্য জয়।

টানা ৫ জয়ের পর ঘরের মাটিতে টানা ২ হারের স্বাদ নিলেও বিপিএলের পয়েন্ট তালিকার শীর্ষেই থাকল চিটাগং। ৯ ম্যাচে ৬ জয় ও ৩ হারে তাদের অর্জন ১২ পয়েন্ট। আর এই জয়ে তালিকার পঞ্চম স্থানে উঠে এল রাজশাহী। ১০ ম্যাচে সমান ৫ জয় ও হারে ১০ পয়েন্ট নিয়ে প্লে-অফে খেলার সম্ভাবনা টিকিয়ে রাখল তারা।

সংক্ষিপ্ত স্কোর :

রাজশাহী কিংস : ১৯৮/৫ (২০ ওভারে) (চার্লস ৫৫, সৌম্য ২৬, ইভান্স ৩৬, টেন ডসকাটে ২৭, জোঙ্কার ৩৭, ফজলে মাহমুদ ১*; আবু জায়েদ ১/২৪, খালেদ ২/৩২, নাঈম ০/৪৪, রবিউল ০/৪৭, ডেলপোর্ট ১/৩৫, রাজা ০/১০)

চিটাগং ভাইকিংস : ১৯১/৮ (২০ ওভারে) (শাহজাদ ৪৯, ডেলপোর্ট ১, ইয়াসির ৫৮, মুশফিক ২২, মোসাদ্দেক ১, রাজা ২৯, নাজিবউল্লাহ ১১, নাঈম ০*, রবিউল ৩, আবু জায়েদ ১*; রাব্বি ২/৪৪, মিরাজ ২/২৫, মুস্তাফিজ ৩/২৮, সানি ১/৩৭, টেন ডসকাটে ০/৩২, সৌম্য ০/২৩)।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here