প্রধানমন্ত্রীর আমন্ত্রণে না আসার সিদ্ধান্ত ঐক্যফ্রন্টের অগণতান্ত্রিক আচরণ বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

সোমবার সচিবালয়ে সমসাময়িক রাজনৈতিক ইস্যু নিয়ে প্রেস ব্রিফিংয়ে তিনি এ কথা বলেন।

আগামী ২ ফেব্রুয়ারি গণভবনে আমন্ত্রণ জানানো রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে সংলাপ নয়, এটা একটা ‘গার্ডেন পার্টি’ বলে জানিয়েছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপি যে চেষ্টাটা করছে নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করার, সেটায় তারা ফেল করেছে। সব দেশেই তারা চিঠি লিখেছেন গণতান্ত্রিক বিশ্বে তাতে তো কেউ সায় দেয়নি। সবাই নির্বাচিত প্রধানমন্ত্রী ও নির্বাচিত সরকারকে অভিনন্দন জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী নিজেই বলেছেন, তাদের সংখ্যা কত সেটা আমরা দেখব না। তারা যদি যুক্তিসঙ্গত কোনো বিষয় সংসদে উত্থাপন করে সেটা আমরা সক্রিয়ভাবে বিবেচনা করব।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, গণতন্ত্র এক চাকার সাইকেল নয়। এটি দুই চাকার বাইসাইকেল। সংসদে বিরোধীপক্ষ শক্তিশালী হলে গণতন্ত্র মজবুত হয়।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন নিয়ে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের অভিযোগের ব্যাপারে ওবায়দুল কাদের বলেন, পৃথিবীর কোনো দেশে ত্রুটি-বিচ্যুতি ও প্রশ্ন ছাড়া নির্বাচন হয়েছে, কেউ বলতে পারবে না। অনেক বৃহৎ দেশেও নির্বাচন ত্রুটিপূর্ণ হয়েছে। তাই বলে তাদের দেশে গণতন্ত্র ও উন্নয়ন থেমে থাকেনি।

জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের জ্যেষ্ঠ সদস্যদের আগামী ২ ফেব্রুয়ারি গণভবনে চায়ের আমন্ত্রণ জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। গত শনিবার প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে জোটের স্টিয়ারিং কমিটির সব সদস্যের কাছে আলাদা আমন্ত্রণপত্র পাঠানো হয়।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here