ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর শেষ মুহূর্তের পেনাল্টি গোলে পয়েন্ট হারানোর শঙ্কা থেকে রক্ষা পেয়েছে জুভেন্টাস। শেষ বাঁশি বাজার দুই মিনিট আগে স্পট কিক থেকে গোল করে দল জেতান পর্তুগিজ তারকা। ফলে লাজিওর বিপক্ষে পিছিয়ে থাকা ম্যাচ শেষ পর্যন্ত ২-১ গোলে জিতে ১২ পয়েন্টে এগিয়ে গেল জুভরা।

ঘরের মাঠে রোববার ১৩তম মিনিটেই কর্নার থেকে গোলমুখ খুলতে পারত লাৎসিও। তবে দলটির ওয়াললেসের নেওয়া দুর্বল হেড সহজেই আটকে দেন সেজনি। এরপর ম্যাচের ১৯তম মিনিটে ২০ গজ দূর থেকে কোরেরার দুর্দান্ত শট ডানদিকে ঝাঁপিয়ে পড়ে রুখে দেন সেজনি। প্রথমার্ধে এভাবেই লাৎসিওর সামনে দেয়াল হয়ে ছিলেন জুভেন্টাস গোলরক্ষক।

বিরতির পর অবশ্য বিপত্তিতে পড়ে জুভেন্টাস। কেননা ৫৯তম মিনিটে ক্যানের আত্মঘাতী এক গোলে ১-০ ব্যবধানে পেছনে পড়ে তুরিনের ক্লাবটি। তখন অতিথি শিবিরে হারের শঙ্কাও ভর করেছিল। তবে ৭৪তম মিনিটে ক্যানসেলোর গোলে দলটির সমর্থকেরা খানিকটা স্বস্তি ফিরে পায়। তারপরও তোদের মনের মধ্যে একটা খচখচানি ছিলই। কি হয় না হয়। শেষ পর্যন্ত ৮৭তম মিনিটে কানসেলোকে ডি-বক্সে রোমানিয়ার ডিফেন্ডার স্তেফান ফেলে দিলে পেনাল্টিটি পায় জুভেন্টাস। সেই সুযোগে বুলেট স্পট কিকে গোল করে জুভিদের নাটকীয় জয় এনে দিয়ে উল্লাসে মাতান রোনালদো। চলতি লিগে পর্তুগিজ ফরোয়ার্ড এ নিয়ে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ১৫টি গোল করলেন।

এখন পর্যন্ত সিরি ‘আ’-র চলতি আসরে ২১ ম্যাচে ১৯ জয় ও দুই ড্রয়ে ৫৯ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে আছে জুভেন্টাস। ৪৮ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের দুইয়ে নাপোলি। তিনে থাকা ইন্টার মিলানের পয়েন্ট ৪০। এদিকে ৩২ পয়েন্ট নিয়ে অষ্টম স্থানে আছে লাৎসিও।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here