কোপ দেল রে’র প্রথম লেগে সেভিয়ার কাছে হেরেছিল মেসিহীন বার্সালোনা। ফিরতি লেগে ন্যু ক্যাম্পে তাই প্রহরটা ছিল ফেরার গল্প দেখার। পরিকল্পনা অনুযায়ী মাঠে খুদে জাদুকর লিওনেল মেসি। তাই আশার পারদটাও উচুতে। সেই আশাও মেটালো বার্সা।

প্রত্যাবর্তনের দুর্দান্ত গল্প রচনা করে সেভিয়াকে গোলবন্যায় ভাসিয়ে কোপা দেল রে’র সেমি ফাইনালে পা রেখেছে বার্সালোনা। সেভিয়াকে ভালভার্দের শিষ্যরা হারিয়েছে ৬-১ ব্যবধানে।

মেসিতো গোল পেয়েছেনই গোল করিয়েছেন একটি। সঙ্গে স্বভাবগতভাবে কুতিনহোর হাতে পেনাল্টির বলও তুলে দেন। ম্যাচের পর ম্যাচ আত্মবিশ্বাসহীনতায় ভুগতে থাকা ফিলিপ কুতিনহোও গোল আদায় করে নিয়েছেন। সঙ্গে জোড়া গোলও করেছেন। গোল পেয়েছেন রবার্তো, রাকিটিচ ও সুয়ারেজও।

ঘরের মাঠে শুরু থেকেই প্রভাব বিস্তার করেছে বার্সেলোনা। ১৩ মিনিটে লিওনেল মেসি প্রতিপক্ষ বক্সে ফাউলের শিকার হলে পেনাল্টির বাঁশি বাজে। ফিলিপে কৌতিনহো স্পটকিকে এগিয়ে দেন স্বাগতিকদের।

ম্যাচের ২৪ মিনিটে অতিথি মিডফিল্ডার রোকিকে জেরার্ড পিকে ফাউল করলে পেনাল্টি পায় সেভিয়াও। কিন্তু এভার বানেগার স্পটকিক ঠেকিয়ে নায়ক বনে যান বার্সা গোলরক্ষক সিলেসেন।

পরে ৩১ মিনিটে ইভান রাকিটিচের গোলে ব্যবধান দ্বিগুণ করে কাতালানরা। ম্যাচে তখন দুই লেগ মিলিয়ে ২-২ সমতা।

বিরতির পর ফিরে ৫৩ মিনিটে হেডে আবারও জাল খুঁজে নেন ব্রাজিলিয়ান কৌতিনহো। এক মিনিট বাদেই মেসির বানিয়ে দেয়া বলে গোল করেন সার্জিও রবের্তো। তখনই সেমির সুবাস পেতে থাকে বার্সেলোনা।

ম্যাচের ৬৭ মিনিটে সেভিয়ার গিলের্মো একটি গোল ফিরিয়ে দিলে লড়াইয়ের আভাস মেলে। কিন্তু ৮৯ মিনিটে জর্ডি আলবার পাসে লুইস সুয়ারেজ, আর যোগ করা সময়ে পুরো ম্যাচে দারুণ খেলা লিওনেল মেসি সেভিয়ার কফিনে শেষ পেরেকটি ঠুকে দিলে আধা ডজন গোলের পসরা সাজিয়েই সেমির টিকিট কাটে বার্সা।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here