ইতিহাসের পুনরাবৃত্তি? সম্ভবত তাই। ‘করণ অর্জুন’ ‘কুছ কুছ হোতা হ্যায়’ আর ‘হাম তুমহারে হ্যায় সনম’ ছবির পর বহুদিন ধরে অনেক পরিচালক ফের শাহরুখ আর সালমানকে একসঙ্গে পর্দায় আনতে চেষ্টা করেছিলেন। কিন্তু কাজ হয়নি। একাধিকবার শেষ মুহূর্তে সমস্ত পরিকল্পনা ধূলিসাৎ হয়ে গিয়েছে। কিন্তু এবার হয়তো পরিকল্পনা ফলপ্রসূ হলেও হতে পারে। কারণ যে পরিচালক এবার এই উদ্যোগ নিয়েছেন তিনি সহজে হাল ছাড়ার পাত্র নন।

সংবাদ প্রতিদিন পত্রিকার খবরে বলা হয়, শেষ ২০০২ সালে এই জুটিকে একসঙ্গে পর্দায় দেখা গিয়েছিল। ছবিটি ছিল ‘হাম তুমহারে হ্যায় সনম’। কিন্তু তারপর থেকেই শুরু হয় দুই খানের সংঘাত। ক্যাটরিনার জন্মদিনের পার্টিতে দুই খানের দ্বন্দ্বের শুরু। প্রথমে মান-অভিমানের পর্ব চললেও পরে সমস্যা চরমে পৌঁছায়। এর মধ্যেই ক্যাটরিনা শাহরুখের সঙ্গে ছবি করেন। ভাইজান হয়তো কিছু বুঝেছিলেন। তাই কয়েক বছর পর শাহরুখের সঙ্গে সমস্যা মিটে যায় তার। ততদিনে ক্যাটের সঙ্গে সল্লু মিঞার ব্রেক আপও হয়ে গিয়েছে।

আর যেদিন থেকে দু’জনের মধ্যে আবার ভাব হয়েছে, সেদিন থেকেই এ ওর ছবিতে কয়েক সেকেন্ডের জন্য দেখা দিয়েছেন তারা। সালমানের ‘টিউবলাইট’ -এ যেমন দেখা গিয়েছে শাহরুখকে, তেমনই শাহরুখের ‘জিরো’ ছবিতে একটা গোটা গানে নেচেছেন সালমান। বন্ধুত্ব যে ক্রমশ দৃঢ় হচ্ছে তা নিয়ে কোনও সন্দেহ নেই। আর ঠিক এই সুযোগটাই কাজে লাগিয়ে নিতে চাইছেন পরিচালক সঞ্জয় লীলা বানশালী।

সালমানের সঙ্গে আগে বানশালী ‘খামোশি: দ্য মিউজিক্যাল’ ও ‘হাম দিল দে চুকে সনম’-এর মতো ছবি করেছেন। শাহরুখের সঙ্গে করেছেন ‘দেবদাস’। ফলে দুই অভিনেতার সঙ্গেই পরিচালক কাজ করতে সাবলীল। সালমানের সঙ্গে মাঝে বানশালীর একটু সমস্যা হয়েছিল। কিন্তু সে সব এখন মিটে গিয়েছে।

শোনা গিয়েছিল সালমানের সঙ্গে একটি ছবি করতে চাইছেন। সেখানেই থাকার কথা শাহরুখেরও। মানে, একই ছবিতে অভিনয় করতে চলেছেন বলিউড বাদশাহ আর সল্লু মিঞা। সব যদি ঠিক থাকে, তাহলে ‘করণ অর্জুন’, ‘কুছ কুছ হোতা হ্যায়’ আর ‘হাম তুমহারে হ্যায় সনম’-এর পর এটি তাদের চতুর্থ ছবি হবে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here