বর্ণবাদ বিদ্বেষী মন্তব্যের জন্য শাস্তি পেলেও আসন্ন ক্রিকেট বিশ্বকাপে সরফরাজ আহমেদই পাকিস্তানকে নেতৃত্ব দেবেন বলে জানিয়েছেন দেশটির ক্রিকেট বোর্ড পিসিবির প্রধান এহসান মানি।

মঙ্গলবার লাহোরে সংবাদ সম্মেলকে এ সিদ্ধান্তের কথা জানান মানি। এ সময় খেলোয়াড় ও অধিনায়ক হিসেবে সরফরাজের দক্ষতার উচ্ছ্বসিত প্রশংসা করেন অভিজ্ঞ এই ক্রীড়া সংগঠক।

মানি সরফরাজের নেতৃত্বের শুরুর দিককার কথাও মনে করিয়ে দেন। এই উইকেটকিপার-ব্যাটসম্যানের নেতৃত্বেই ২০০৬ সালে অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ জিতেছিল পাকিস্তান। সময়ের সঙ্গে খেলোয়াড় ও অধিনায়ক হিসেবে সরফরাজের আরও উন্নতি হয়েছে বলে মনে করেন পিসিবি প্রধান। সেই সঙ্গে জানিয়ে দিলেন, বিশ্বকাপের আগে মার্চ মাসে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সিরিজেও সরফরাজ পাকিস্তানকে নেতৃত্ব দেবেন।

“অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপে দলকে নেতৃত্ব নেওয়ার পর সময়ের সঙ্গে সরফরাজ অনেক উন্নতি করেছে।”

“সরফরাজ পাকিস্তান দলের অধিনায়ক-এই নিয়ে কোনো সন্দেহ নেই। সে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সিরিজে ও বিশ্বকাপে দলকে নেতৃত্ব দেবে।”

“সরফরাজ অধিনায়ক হবে এটা নিয়ে মনে মনে আমি সবসময়ই পরিষ্কার ছিলাম। বিশ্বকাপে পাকিস্তানের অংশগ্রহণে সরফরাজ অবিচ্ছেদ্য অংশ হয়ে ওঠেছে। সে নিজেকে ভালো একজন কৌশলী, অধিনায়ক ও পারফরর্মার হিসেবে প্রমাণিত করেছে।”

“২০১৭ সালের চ্যাম্পিয়ন্স লিগে পাকিস্তানের শিরোপা জয়ে সে নেতৃত্ব দিয়েছিল। তার নেতৃত্বেই আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে র‍্যাঙ্কিং শীর্ষে উঠেছে দল।”

উল্লেখ্য, ডারবানে পাঁচ ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচে ব্যাট করতে থাকা দক্ষিণ আফ্রিকার ব্যাটসম্যান অ্যান্ডিল ফেলুকায়োকে উর্দু ভাষায় ‘কালো’ বলে কিছু একটা বলেন সরফরাজ। পাকিস্তানের উইকেটকিপার-ব্যাটসম্যানের এই কথা ধরা পড়ে স্টাম্প মাইক্রোফোনে। সঙ্গে সঙ্গে আলোড়ন পড়ে যায় ক্রিকেটমহলে।

এমন মন্তব্যের জন্য সরফরাজ নিজে ও পিসিবি দু:খ প্রকাশ করলেও শাস্তি থেকে রেহাই পাননি। আন্তর্জাতিক ক্রিকেট সংস্থা (আইসিসি) চারটি আন্তর্জাতিক ম্যাচে নিষেধাজ্ঞা দেয় তাকে। এই নিষেধাজ্ঞার পর দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে সরফরাজকে ফিরিয়ে আনা হয়।

ওয়ানডে সিরিজের বাকি ম্যাচগুলোতে ও তিন ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজের জন্য আপাতকালীন অধিনায়ক করা হয় শোয়েব মালিককে। তখন থেকেই গুঞ্জন শুরু হয়, স্থায়ীভাবেই নেতৃত্ব হারাতে পারেন সরফরাজ।

মঙ্গলবার সেসব গুঞ্জন উড়িয়ে দিলেন মানি। জানিয়ে দিলেন, সরফরাজই পাকিস্তানের অধিনায়ক- “পাকিস্তান ক্রিকেট দলে এখন একজনই অধিনায়ক। তা-ই থাকবে।”

সংবাদ সম্মেলনে মানির পাশে উপস্থিত ছিলেন সরফরাজও। বিশ্বকাপে নেতৃত্ব দেওয়ার নিশ্চয়তা পেয়ে অভিজ্ঞ এই ক্রিকেটার বলেন, “যেসব ক্রিকেটার অতীতে বিশ্বকাপে পাকিস্তানকে নেতৃত্ব দিয়েছেন তাদের তালিকায় যোগ দিতে পেরে আমি গর্ব বোধ করছি। বিশ্বকাপে সেরা পারফরম্যান্স দেখাতে চেষ্টা করব আমরা।”

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here