টঙ্গীতে বিশ্ব ইজতেমার সময় বাড়িয়ে চারদিন করা হয়েছে। দুগ্রুপ আলাদা করে নিয়ন্ত্রণ করবে ইজতেমা। বাংলাদেশের ধর্ম প্রতিমন্ত্রী শেখ মো. আব্দুল্লাহ বলেছেন, বিশ্ব ইজতেমার সময়সীমা শেষ পর্যন্ত তিন দিনের বদলে চারদিন করা হয়েছে। তাবলীগের বিবদমান দুগ্রুপের সঙ্গে বৈঠকে এ বিষয়ে আরও কিছু সিদ্ধান্ত হয়েছে বলে জানিয়েছেন ধর্ম প্রতিমন্ত্রী।

সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ১৫ ফেব্রুয়ারি থেকে ১৮ ফেব্রুয়ারি- এ চারদিন বিশ্ব ইজতেমা হবে। এর মধ্যে প্রথম দুদিন ইজতেমা নিয়ন্ত্রণ ও ব্যবস্থাপনায় থাকবে মাওলানা জুবায়ের আহমদ। নির্বাচন আর কান্দালভি বিতর্কে পেছালো ইজতেমা। প্রথম দুদিন তারা তাদের মতো করে আয়োজন করে সবকিছু শেষ করে মোনাজাত করে চলে যাবে।

তিনি বলেন, শেষ দুদিনের দায়িত্বে থাকবেন সৈয়দ ওয়াসিফুল ইসলাম। তারা তাদের মতো করে ওই দুদিনের সবকিছু করবেন। তাহলে সবকিছু আলাদা ভাবেই হচ্ছে কি-না এমন প্রশ্নের জবাবে ধর্ম প্রতিমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশে তাবলীগের ইজতেমা একসঙ্গে হবে। সুন্দর ব্যবস্থাপনার জন্য দু ভাগে ভাগ করা হয়েছে। প্রথম দুদিন মাওলানা জুবায়ের সব ব্যবস্থাপনা করবেন। আর শেষ দুই দিনে সৈয়দ ওয়াসিফ দায়িত্ব পালন করবেন।

তারা দুজন মিলেই দায়িত্ব ভাগ করে নিয়েছেন যাতে কোনো মারামারি না হয়।

প্রতিমন্ত্রী বলেন ইজতেমা এবার হচ্ছে না বলে বলা হচ্ছিলো। কিন্তু সেটি হবে এবং সুন্দরভাবে যাতে পরিচালনা হয় যাতে কোনো বিতর্ক না হয় সেজন্য ব্যবস্থা নিচ্ছি।
তিনি আরও বলেন, সবার সুবিধার জন্য ইজতেমা একদিন বাড়ানো হয়েছে। মাওলানা জুবায়ের ও সৈয়দ ওয়াসিফের ব্যবস্থাপনায় চারদিনের ইজতেমা একত্রিত অবস্থায় আমরা সম্পন্ন করবো।

তাবলীগের সাদ পন্থী গ্রুপের একজন আশরাফ আলী বলেন, তারা তাদের নিজেদের মতো করে দুদিন ইজতেমা আয়োজন করবেন। ইজতেমা সূত্রগুলো বলছে সাদ কান্দালভী এবার আসবেন না কিন্তু তার প্রতিনিধিদের আসার সম্ভাবনা আছে।

সাদ বিরোধী গ্রুপের মাহফুজ হান্নান বলেন, দুদিন করে আয়োজনের সিদ্ধান্ত হয়েছে সেটি ভালো হয়েছে বলেই মনে করেন তিনি।

তথ্যসূত্র: বিবিসি।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here