সিরিয়ার অভ্যন্তরে ইহুদিবাদী ইসরাইলের ধারাবাহিক বিমান হামলার ব্যাপারে আপত্তি জানিয়েছে রাশিয়া। রুশ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলেছে, ইসরাইলকে সিরিয়ায় ‘স্বেচ্ছাচারী’ বিমান হামলা বন্ধ করতে হবে।

রাশিয়ার উপ পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই ভারশিনিনের বরাত দিয়ে রুশ বার্তা সংস্থা তাস এ খবর জানিয়েছে। সিরিয়ায় জানুয়ারি মাসে বেশ কয়েকবার বিমান হামলা চালায় ইহুদিবাদী ইসরাইল। এসব হামলার প্রতি ইঙ্গিত করে ভারশিনিন বলেন, “সাম্প্রতিক ইসরাইলি হামলার পরিপ্রেক্ষিতে আমরা একটি সার্বভৌম দেশের ওপর এ ধরনের ‘স্বেচ্ছাচারী’ হামলা বন্ধ করার আহ্বান জানাচ্ছি।”

রাশিয়ার উপ পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, “এ ধরনের যেকোনো হামলা পরিস্থিতিকে আরো নাজুক করবে। সিরিয়ায় সন্ত্রাস বিরোধী যুদ্ধে সহযোগিতা করা ছাড়া অন্য কোনো হামলা চালানো যাবে না।”

ইহুদিবাদী ইসরাইল সিরিয়ায় হামলা চালিয়ে মাঝেমধ্যে দাবি করে, তারা ‘ইরানি অবস্থানে’ হামলা চালিয়েছে।

সিরিয়ায় গত আট বছর ধরে চলা সন্ত্রাস বিরোধী যুদ্ধে ইরান ও রাশিয়া দামস্ক সরকারকে সহযোগিতা দিচ্ছে। তবে ইরান সিরিয়াকে শুধু সামরিক উপদেশ দিয়ে সাহায্য করছে এবং সিরিয়ায় অবস্থানরত ইরানি সামরিক উপদেষ্টাদের সংখ্যাও অত্যন্ত সীমিত। অন্যদিকে রাশিয়া সরাসরি সন্ত্রাস বিরোধী যুদ্ধে সেনা ও সামরিক সরঞ্জাম দিয়ে সাহায্য করছে।

এর আগে গতমাসের মাঝামাঝি সময়ে ইরানের ইসলামি বিপ্লবী গার্ড বাহনিী বা আইআরজিসি’র কমান্ডার মেজর জেনারেল মোহাম্মাদ আলী জাফারি সতর্ক করে দিয়ে বলেছিলেন, ইরান সিরিয়ায় অবস্থানরত নিজের সামরিক উপদেষ্টাদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করবে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here