ইরাকের জাতীয় সংসদের স্পিকার মুহাম্মাদ আল-হালবুসি নিশ্চিত করে বলেছেন, ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের ওপর আমেরিকা যে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে তার বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছে বাগদাদ।

ইরাকে নিযুক্ত ইরানের রাষ্ট্রদূত ইরাজ মাসজেদির সঙ্গে শনিবার বৈঠকের সময় তিনি একথা বলেন। হালবুসি জোর দিয়ে বলেন, ইরাকের জ্বালানি চাহিদা পূরণের জন্য ইরান থেকে গ্যাস ও বিদ্যুৎ আমদানি করা জরুরি কিন্তু মার্কিন নিষেধাজ্ঞার কারণে এ ক্ষেত্রে সমস্যা সৃষ্টি হচ্ছে।

গত শুক্রবার ইরাকের সঙ্গে বিদ্যুৎ রপ্তানি চুক্তির মেয়াদ বাড়িয়েছে ইরান। এ চুক্তির আওতায় তেহরান প্রতিদিন ইরাকের কাছে ১,২০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ রপ্তানি করবে।

ইরাকের অভ্যন্তরীণ চাহিদা মেটানোর জন্য প্রতিদিন ২৩ হাজার মেগাওয়াট বিদ্যুৎ দরকার। কিন্তু ২০০৩ সালে মার্কিন সামরিক আগ্রাসনের কারণে ইরাকের বৈদ্যুতিক অবকাঠামো ব্যাপকভাবে ধ্বংস হয়েছে। এতে দেশটিতে এখন দৈনিক সাত হাজার মেগাওয়াট বিদ্যুতের ঘাটতি দেখা দিয়েছে।

গতকালের বৈঠকে ইরাকের স্পিকার আরো বলেছেন, আঞ্চলিক স্থিতিশীলতা ও নিরাপত্তা প্রতিষ্ঠার ক্ষেত্রে ইরান এবং ইরাক নেতৃস্থানীয় ভূমিকা পালন করতে পারে। এছাড়া, ইরাকের অভ্যন্তরে সন্ত্রাসবিরোধী লড়াইয়ে ইরানি সহায়তার জন্য ভূয়শী প্রশংসা করেন হালবুসি। তিনি আশা করেন, ইরাকের পুনর্গঠনে তেহরান তার সহায়তা অব্যাহত রাখবে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here