পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন বলেন, মানবাধিকার ইস্যুতে বাংলাদেশ বিশ্বের কাছে রোল মডেল। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশে রোহিঙ্গাদের আশ্রয় না দিলে সেখানে গণহত্যা হতো। আর সেটা হলে বিশ্বনেতারা মুখ দেখাতে পারতেন না।

রোহিঙ্গা পুনর্বাসন দীর্ঘায়িত হলে বাংলাদেশে উগ্রপন্থার সৃষ্টি হতে পারে বলে মন্তব্য করেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন।

তিনি বলেন, সরকার মানবাধিকার রক্ষায় সচেষ্ট। রোহিঙ্গাদের জন্য রাখাইনে সেফজোন তৈরি করতে হবে। আমরা এ বিষয়ে নতুন করে কাজ শুরু করছি।

রোববার রাজধানীর হোটেল কন্টিনেন্টালে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে তিনি এসব কথা বলেন। হোটেল কন্টিনেন্টালে ‘বাংলাদেশ ও মানবাধিকার’ -শীর্ষক এক সেমিনারের আয়োজন করে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ও ঢাকার জাতিসংঘ অফিস।

সেমিনারের উদ্বোধনী পর্ব শেষে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, রোহিঙ্গাদের জন্য রাখাইনে সেফজোন তৈরি করতে হবে। আমরা এটা নিয়ে নতুন করে কাজ করছি। সেফজোনে ভারত, চীনসহ আশিয়ান দেশের সদস্যরা সহযোগিতা দিতে পারে।

সেমিনারে জাতিসংঘের বাংলাদেশে আবাসিক প্রতিনিধি মিয়া সেপ্পো বলেন, বাংলাদেশে নতুন সরকার ক্ষমতায় এসেছে। আমাদের প্রত্যাশা তারা সার্বজনীন মানবাধিকারের সব ধারা সমুন্নত রাখবে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here