বিশ্ব ইজতেমার কারণে চলমান মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (এসএসসি) ও সমমানের তিনটি পরীক্ষা পিছিয়ে দিয়েছে শিক্ষাবোর্ডগুলো।

সূচি অনুযায়ী আগামী ১৬, ১৭ ও ১৮ ফেব্রুয়ারিতে নির্ধারিত পরীক্ষার তারিখ পরিবর্তন করে আগামী ২৬ ও ২৭ ফেব্রুয়ারি এবং ২ মার্চ নির্ধারণ করা হয়েছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন আন্তঃশিক্ষা বোর্ড সমন্বয় সাব-কমিটির প্রধান ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক মু. জিয়াউল হক।

এ বছর তাবলিগ জামাতের ইজতেমা এক পর্বে চার দিনে শেষ হবে। আগামী ১৫, ১৬, ১৭ ও ১৮ ফেব্রুয়ারি গাজীপুরের টঙ্গীর তুরাগ নদীর তীরে ইজতেমা অনুষ্ঠিত হবে।

গত ২ ফেব্রুয়ারি থেকে এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরু হয়েছে। আগামী ২৬ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত লিখিত বা তত্ত্বীয় বিষয়ের পরীক্ষার তারিখ নির্ধারিত ছিল।

পুরনো সূচি অনুযায়ী, আগামী ১৬ ফেব্রুয়ারি শনিবার আটটি সাধারণ বোর্ডে সকালে রসায়ন, পৌরনীতি ও নাগরিকতা এবং ব্যবসায় উদ্যোগ বিষয়ের পরীক্ষা অনুষ্ঠানের কথা ছিল। এদিন মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডের অধীনে সকালে বাংলা প্রথম পত্র অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। এই ১৬ ফেব্রুয়ারির পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে আগামী ২৬ ফেব্রুয়ারি।

১৭ ফেব্রুয়ারি রবিবার সকালে বাংলা ভাষা ও সাহিত্য, ইংরেজি ভাষা ও সাহিত্য, গার্হস্থ্য বিজ্ঞান, কৃষি শিক্ষা ও সংগীত এবং বিকালে আরবি, সংস্কৃত, পালি, কর্মমুখী শিক্ষা, কম্পিউটার শিক্ষা, শারীরিক শিক্ষা ও ক্রীড়া, বেসিক ট্রেড এবং চারু ও কারুকলা বিষয়ের পরীক্ষা নির্ধারিত ছিল। এদিন মাদ্রাসা বোর্ডের বাংলা দ্বিতীয় পত্র হওয়ার কথা ছিল। এই ১৭ ফেব্রুয়ারির পরীক্ষা হবে ২৭ ফেব্রুয়ারি।

আর ১৮ ফেব্রুয়ারি সোমবার সকালে জীববিজ্ঞান ও অর্থনীতি বিষয়ের পরীক্ষা নির্ধারিত ছিল। আর মাদ্রাসা বোর্ডে পৌরনীতি ও নাগরিকতা, কৃষিশিক্ষা, গার্হস্থ্য বিজ্ঞান, মানবিক, উর্দু ও ফার্সি বিষয়ে পরীক্ষার তারিখ নির্ধারিত ছিল। এছাড়াও কারিগরি শিক্ষা বোর্ডে এদিন কয়েকটি বিষয়ের পরীক্ষা ছিল। এসব পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে আগামী ২ মার্চ।

ঢাকায় ধর্মীয় মাহফিলের কারণে এর আগেও পরীক্ষা পেছানোর নজির ছিল। গত বছর নভেম্বরে রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে কওমি মাদ্রাসা সংশ্লিষ্টদের শোকরানা মাহফিলের কারণে একদিনের জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষা পেছানো হয়েছিল।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here