ধর্ম প্রতিমন্ত্রী শেখ মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ বলেছেন, ‘কেবল সৌদি আরবের কারণেই এবার হজের খরচ বেড়েছে। দেশটি সারা বিশ্বের হজযাত্রীদের জন্য এবার ২৫ হাজার টাকার মতো খরচ অতিরিক্ত বাড়িয়েছে। তাই সরকারের আন্তরিকতা ও চেষ্টার পরও খরচ বেড়েছে।’

আজ মঙ্গলবার সচিবালয়ে ধর্ম মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে হজ খরচ বাড়ার কারণ ব্যাখ্যা করতে গিয়ে তিনি এসব কথা বলেন।

ধর্ম প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘এবার প্যাকেজ ১-এ প্রস্তাব করা হয়েছিলো ৪ লাখ ৪২ হাজার ৯১০ টাকা। বিমান ভাড়ার প্রস্তাবনাই ছিলো ১ লাখ ৪৮ হাজার টাকা। আমরা চেষ্টা করেছি কমাতে। এবার প্যাকেজ ঘোষণা হয়েছে ৪ লাখ ১৮ হাজার ৫১৬ টাকা। তাই তুলনামূলক হজের খরচ কমেছে।’

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘সৈদি আরব কর্তৃপক্ষের নির্ধারণ করা খরচ সারাবিশ্বের জন্যই এক, এটা কেউ কমাতে পারে না। আমাদেরও কমানোর সুযোগ নেই। এই টাকা নেবে সৌদি আরব সরকার। তারা এবার সেই খরচ ২৫ হাজার টাকা বাড়িয়েছে। আর এতেই বেড়েছে হজের খরচ।’

শেখ মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কাল কেবিনেটে বলেছেন, ‘হাজিরা আল্লাহর মেহমান। তাদের চোখে কোনো কষ্ট, মনে কোনো ব্যথা দেখতে চাই না।’ তিনি খুব নিষ্ঠার সঙ্গে হজ পালন করেন। তিনি হজের কাজও তীক্ষ্ণভাবে পর্যবেক্ষণ করেন। তিনি চান, হাজিরা যেন সুন্দরভাবে হজ করেন।’

প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, ‘এ বছর হজে খারাপ কিছু হবে না, এটা নিশ্চিত। আমি ৪/৫ বার হজে গিয়েছি। আমি ভোগান্তিতেও পড়েছি। আমি জানি হাজিদের ভোগান্তি কোথায়। সবাই যে কষ্ট করেন, আমিও তা করেছি। তখনই সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম, সুযোগ পেলে এই কষ্ট দূর করবো। আল্লাহ সেই নিয়ত কবুল করেছেন। কাজ করার সুযোগ দিয়েছেন। আমরা হাজিদের সন্তুষ্ট করার চেষ্টা করবো।’

উল্লেখ্য, সৌদি আরবের সঙ্গে হজচুক্তি অনুযায়ী, এবার বাংলাদেশ থেকে এক লাখ ২৭ হাজার ১৯৮ জন হজ করতে পারবেন। এরমধ্যে সরকারি ব্যবস্থাপনায় ৭ হাজার ১৯৮ জন ও অবশিষ্ট এক লাখ ২০ হাজার জন বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় হজ করার সুযোগ পাবেন।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here