বাংলাদেশের কৃষিখাতে যৌথভাবে গবেষণা এবং জিএমও, উন্নত হাইব্রিড ফসল, খাদ্য সংরক্ষণ ও প্রক্রিয়াজাতসহ আধুনিক কৃষি প্রযুক্তিতে সহায়তা করতে চায় ফ্রান্স।

বুধবার সচিবালয়ে কৃষিমন্ত্রী ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক এমপির সাথে বৈঠকে ফ্রান্সের রাষ্ট্রদূত মেরি ই আন্নিক বাউডিন এ সহায়তার দেয়ার কথা জানান। এসময় রাষ্ট্রদূত বাংলাদেশের কৃষিমন্ত্রীকে তার দেশের কৃষিমন্ত্রীর আমন্ত্রণ বার্তা পৌঁছে দেন। বৈঠকে কৃষি মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব নাসিরুজ্জামান উপস্থিত ছিলেন।

মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, বৈঠকে দুর্যোগ মোকাবেলাসহ বৃষ্টির পানি সংরক্ষণ ও এর বহুবিধ ব্যবহার, সৌর বিদ্যুৎ ও বায়ুবিদ্যুতেও ফ্রান্স তাদের আগ্রহের কথা জানান।

এসময় দেশের কৃষিবিদ, কৃষি বিজ্ঞানী ও কৃষকের অক্লান্ত পরিশ্রম, কৃষি যান্ত্রিকীকরণ ও  কৃষি ভর্তুকি এবং সরকারের আন্তরিকতার ফলে বাংলাদেশ কৃষিতে অভাবনীয় সাফল্য অর্জন করেছে বলে জানান কৃষিমন্ত্রী ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক।

কৃষি আমাদের অর্থনৈতিক গতিশীলতার জন্য অপরিহার্য উল্লেখ করেন তিনি বলেন, বাংলাদেশ কৃষি রপ্তানিকারক দেশ হতে চায়। এ ক্ষেত্রে ফ্রান্স বাংলাদেশের সাথে তাদের বাণিজ্য সম্পর্ক উন্নয়নেও আগ্রহ প্রকাশ করে।

সূত্র জানায়, ফ্রান্সের রাষ্ট্রদূত প্রযুক্তির ব্যবহার বাড়ানো, কৃষিতে গবেষণা ও প্রশিক্ষণ, কৃষি অবকাঠামো উন্নয়ন, উন্নত বিজ উৎপাদনে কারিগরি সহায়তার কথা বলেন।

এসময় ফসল সংরক্ষণের বিষয় ফ্রান্সের প্রযুক্তিগত সহায়তা চায় বাংলাদেশ। বাংলাদেশ পাটের উৎপাদন বৃদ্ধিতে আধুনিক কৌশল আবলম্বন করছে উল্লেখ্য করেন কৃষিমন্ত্রী।

কৃষি মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, সৌহার্দপূর্ণ পরিবেশে দুই দেশের কৃষি ও স্বার্থ সংশ্লিষ্ট নানা বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। বাংলাদেশের কৃষিক্ষেত্রে সাফল্যের প্রশংসা করেন ফ্রান্সের রাষ্ট্রদূত।

ফ্রান্স ২০১৮ সালে বাংলাদেশ থেকে চামড়ার জুতাসহ অন্যান্য প্রায় ৪০০ মিলিয়ন ইউরো পণ্য আমাদানি করেছে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here