ধরুন ভাল কোনও পোশাক পরলেন৷ আর তার সঙ্গে যা তা একটা জুতা পরে ফেললেই তো হল না! পোশাকের সঙ্গে জুতার সামঞ্জস্য না থাকলে, সাজটা যে মাটি হবে তা ফ্যাশনিয়েস্তাদের বলার প্রয়োজন নেই৷ কারও কারও উচ্চতা নিয়েও আবার খুঁতখুঁতুনি থাকে৷ তারা বিয়েবাড়ি বা অন্য কোনও পার্টিতে যাওয়ার জন্য হিল তোলা জুতা চোখ বুজে বেছে নেন৷ সৌন্দর্যের কথা ভেবে হিল তোলা জুতা তো পরলেন কিন্তু সারা দিনের কষ্ট? সেটা তো আর ভুললে চলবে না৷ কিন্তু জানেন কি খুব সহজ কয়েকটি পদ্ধতি অনুসরণ করলে হিল তোলা জুতার জন্য পায়ের ব্যথা থেকে মুক্তি পেতে পারেন আপনি? এই টিপসগুলো মেনে চলুন আর যে কোনও অনুষ্ঠানে সাধের হিল জুতা বেছে নিয়ে হয়ে উঠুন অন্য নারীদের হিংসার পাত্রী৷

ভাবুন আপনি জুতা কিনতে গেছেন৷ চোখের সামনে সারি সারি সাজিয়ে রাখা জুতাগুলোর দিকে আপনার নজর পড়ল৷ সঙ্গে সঙ্গে তার মধ্যে থেকে যে কোনও একটি হাতে তুলে নিলেন৷ পায়ে পরে কিছুক্ষণ হাঁটাচলা করে তা কিনেও ফেললেন৷ কিন্তু আসল সময়ে দেখলেন জুতা পায়ে দিতেই শুরু হচ্ছে যন্ত্রণা৷ এই সমস্যার মুখোমুখি হননি এমন নারীর সংখ্যা নিতান্তই কম৷ তাই জুতার সৌন্দর্য বিচার করে কেনার কথা ভুলে যান৷ বরং হিল কেমন তা ভাল করে বেছে নিয়ে তবে কিনুন৷ স্টিলেটো ছেড়ে বরং মন দিন প্ল্যাটফর্ম হিলের দিকে৷

আপনি কি কোনও করপোরেট অফিসের কর্মী? প্রতিদিন জিনস, শার্ট পরে অফিসের উদ্দেশে রওনা হন? এই পোশাকের সঙ্গে যে সরু হিলের জুতাই ভাল মানাবে, তা বলার অপেক্ষা রাখে না৷ এই হিল পরে স্মার্ট লুক হয়তো আসছে কিন্তু পায়ের যন্ত্রণা, সেটাও তো সহ্য করতে হচ্ছে আপনাকে৷ তাই সরুর পরিবর্তে চওড়া হিলের প্রতি নজর দিন৷ দেখবেন, সুন্দর পোশাক পরে এই জুতা পায়ে দিয়েও আপনাকে একই রকম স্মার্ট লাগতে বাধ্য৷

হিল জুতা পরে বেরনোর আগে পায়ের দ্বিতীয় এবং তৃতীয় আঙুলে একটি ব্যান্ডেড জড়িয়ে নিন৷ তার ফলে পায়ের মাঝে চাপ পড়বে৷ তাই হিলের মাধ্যমে আপনার পায়ে ব্যথা হওয়ার কোনও ভয়ই থাকবে না৷

একটি মোটা মোজা নিন৷ সেটি জুতার উপরে গোড়ালির কাছে রাখুন৷ এবার জুতা পরে অনায়াসে হাঁটুন৷ এই উপায় অবলম্বন করলে ব্যথা তো হবেই না উপরন্তু আপনার সৌন্দর্য হয়ে উঠতে পারে অনেকের হিংসার কারণ৷

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here