ইংলিশ লিগ কাপের ফাইনালে চেলসি গোলরক্ষক কেপা আরিজাবালাগার আচরণ রীতিমত হইচই ফেলে দিয়েছে ফুটবল বিশ্বে। চেলসি কোচ মাউরিসিও সারির সিদ্ধান্ত মেনে না নিয়ে খেলা চালিয়ে গিয়ে সমালোচনার মুখে পড়েন তিনি। কোচের কথায় অবাধ্য হয়ে এমন আচরনের জন্য কেপাকে তার এক সপ্তাহের বেতন জরিমানা করেছে চেলসি কর্তৃপক্ষ। জরিমানার পর কোচ ও সতীর্থদের কাছে দুঃখ প্রকাশ করেছেন চাইছেন বিশ্বের সবচেয়ে দামি এ গোলরক্ষক।

গোলরক্ষকের এমন আলোচিত ঘটনার সমাপ্তি চাইছে চেলসি। তাই দুজনই স্বীকার করেছেন, পুরো ব্যাপারটাই আসলে ভুল বোঝাবুঝি ছিল।

ম্যানচেস্টার সিটির বিপক্ষে লিগ কাপের ফাইনালের শেষ মুহূর্তে চোট পেয়েছিলেন কেপা। সারি তখন তাকে উঠিয়ে নিতে চাইলেও কেপা সেটা করেননি। হাত দিয়ে ইশারায় মাঠ থেকে উঠতে অস্বীকৃতি জানান তিনি। বেশ কয়েক মিনিটের নাটকের পর মাঠেই থেকে গেছেন তিনি। পরবর্তীতে কেপা জানিয়েছিলেন, তিনি ফিট ছিলেন বলেই মাঠ ছাড়তে চাননি।

ভুল বোঝাবুঝি হলেও সবার কাছে ক্ষমাও চাইলেন কেপা, ‘যদি ব্যাপারটা ভুল বোঝাবুঝি ছিল, তাও আমি ক্ষমা চাইছি। কারণ ওই সময় আমি পরিস্থিতিটা সঠিকভাবে সামলাতে পারিনি। কোচ, সতীর্থ বিশেষ করে ক্যাবেয়ারোর কাছে ক্ষমাপ্রার্থী। এই ঘটনা থেকে আমি শিক্ষা পেয়েছি। ক্লাব আমাকে যে শাস্তিই দিবে সেটা মাথা পেতে নেবো।’

চেলসি তাকে কোন নিষেধাজ্ঞা দেয়নি। তবে জরিমানার অংকটাও বেশ বড়। কেপার এক সপ্তাহের বেতন প্রায় ২ কোটি টাকা, পুরোটাই চেলসির ফান্ডে জমা দিতে হবে তাকে। চেলসি কোচ সারি বলছেন, কেপার ক্ষমা চাওয়ার পর ব্যাপারটা সবার ভুলে যাওয়া উচিত, ‘সে ক্ষমা চেয়েছে। এখন ব্যাপারটা নিয়ে আর কথা বাড়ানো উচিত না।’

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here