ভারতীয় বিমান আকাশসীমা লঙ্ঘন করে পাকিস্তানে প্রবেশ করে বোমা হামলা চালিয়েছে বলে মঙ্গলবার পাকিস্তানের সেনাবাহিনীর এক মুখপাত্র টু্ইট করেছেন। তবে এতে কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি বলেও দাবি করেছেন ওই মুখপাত্র।

মেজর জেনারেল আসিফ গাফুর বলেন, ভারতীয় বিমান কাশ্মীরের পাকিস্তান নিয়ন্ত্রিত মুজাফরাবাদ সেক্টরে প্রবেশ করে। সঙ্গে সঙ্গে তাদের বিমানবাহিনী ভারতীয় বিমানগুলোকে তাড়া করে।

ভারতীয় বিমান থেকে যে বোমা ফেলা হয়েছিল তা পকিস্তান নিয়ন্ত্রিত বালাকোটের কাছে পড়েছে বলেও জানিয়েছেন মেজর জেনারেল গফুর।

তবে এ ব্যাপারে ভারতের পক্ষ থেকে কোনো মন্তব্য পাওয়া যায়নি।

এদিকে বিবিসি’র প্রতিবেদনে বলা হয়, ১২টি মিরেজ-২০০০ বোমারু বিমান এই অপারেশনে অংশ নিয়েছিল। আর তারা নিয়ন্ত্রণ রেখার অন্যদিকে জঙ্গি ঘাঁটিগুলির ওপরে প্রায় এক হাজার কেজি বোমা বর্ষণ করেছে বলে ভারতীয় বিমান বাহিনীর ওই সূত্র এএনআইকে জানিয়েছে।

১৯৭১ সালের পর থেকে এই প্রথম ভারতীয় বিমান বাহিনী পাকিস্তানের সীমানায় ঢুকে পড়েছে বলে মনে করা হচ্ছে।

জঙ্গি সংগঠন জইশ-ই-মোহম্মদের একটি কন্ট্রোল রুম, যার সাংকেতিক নাম আলফা-৩, সেটিকে ভারতীয় বাহিনী ধ্বংস করতে সক্ষম হয়েছে বলেও দাবী করা হচ্ছে।

ভারতীয় সময় ভোর সাড়ে ৩টার দিকে এই অপারেশন হয় বলে দাবি করেছে ভারতের বিমান বাহিনী।

জইশ-ই-মোহম্মদ ১৪ ফেব্রুয়ারি ভারত শাসিত কাশ্মীরের পুলওয়ামায় কেন্দ্রীয় নিরাপত্তা বাহিনীর একটি কনভয়ের ওপরে হামলা চালিয়ে ৪০ জনের বেশি সিআরপিএফ সদস্যকে হত্যা করে বলে ওই সংগঠনটি নিজেরাই দাবী করেছিল।

তারপর থেকেই ভারতের নানা মহল থেকে দাবী উঠছিল যে ওই হামলার কড়া জবাব দেয়া হোক।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীও বলেছিলেন ওই হামলা যারা করেছে, তারা বড় ভুল করেছে। এর জন্য তাদের চরম মূল্য দিতে হবে।

এর আগে কাশ্মীরের উরিতে সেনা-ছাউনির ওপরে জঙ্গি হামলার পরেই ভারতীয় পদাতিক বাহিনী আন্তর্জাতিক সীমা লঙ্ঘন করে ‘সার্জিকাল স্ট্রাইক’ চালিয়েছিল।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here