জনসমর্থন হারিয়ে বিএনপি নির্বাচনে অংশ নিচ্ছে না বলে মন্তব্য করেছেন তথ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ ।

আজ শুক্রবার  চট্টগ্রাম জেলা শিল্পকলা একাডেমি মিলনায়তনে শিশু অধিকার বিষয়ক সেমিনার শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী এ মন্তব্য করেন। বাংলাদেশ মানবাধিকার কাউন্সিল চট্টগ্রাম শাখা ওই সেমিনারের আয়োজন করে।

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র পদে উপনির্বাচন প্রসঙ্গে তথ্যমন্ত্রী বলেন, উপনির্বাচনে সব সময় ভোটার টার্ন আউট কম হয়। এ ক্ষেত্রে মেয়র নির্বাচিত হচ্ছেন মাত্র এক বছরের জন্য। এমনকি কাউন্সিলর যাঁরা হচ্ছেন, তাঁরাও এক বছরের জন্য। সেই কারণে ভোটার উপস্থিতি কম ছিল। দ্বিতীয়ত, তিন দিনের ছুটি পেয়েছিল মানুষ। তিন দিনের ছুটি পাওয়ায় অনেকে বাড়ি চলে গেছেন। তারপর সকালবেলা ভোটাররা যখন ভোট দিতে যান, তখন ঢাকা শহরে কিন্তু প্রচণ্ড বৃষ্টি হয়েছে। দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়া ছিল। সব মিলিয়ে যে ভোটার টার্ন আউট, সেটি অত্যন্ত সন্তোষজনক বলে আমি মনে করি।

হাছান মাহমুদ বলেন, বাংলাদেশে গণতন্ত্র হত্যা করেছিল বিএনপি, বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমান। তিনি রাতের অন্ধকারে ক্ষমতা দখল করেছিলেন। ক্ষমতার উচ্ছিষ্ট বিলিয়ে রাজনৈতিক ও রাজনীতির কাকদের সমন্বয়ে তিনি বিএনপি গঠন করেছিলেন। আপনারা জানেন, খাবারের উচ্ছিষ্ট বিলিয়ে দিলে যেমন অনেক কাক চলে আসে খাওয়ার জন্য, জিয়াউর রহমানও ক্ষমতার উচ্ছিষ্ট বিলিয়ে দিয়েছিলেন। আজ যারা বিএনপির বড় বড় নেতা, তারা রাজনীতির মাঠের কাক, রিজভী আহমেদসহ।

তিনি আরও বলেন, ক্ষমতার উচ্ছিষ্ট গ্রহণ করার জন্যই তারা বিএনপি করেছিলেন। তাদের প্রত্যেকের অতীত কিন্তু ভিন্ন দল। মির্জা ফখরুল ইসলামের দল ভিন্ন। চট্টগ্রামের যারা নেতা তাদের দল ভিন্ন। আমি নাম বলতে চাই না। কেউ ব্যবসা করতেন, আবার কেউ অন্য দল করতেন। মওদুদ আহমেদের দল ভিন্ন। খোন্দকার মোশারফ হোসেনের দল ভিন্ন। বিভিন্ন দল থেকে রাজনীতির কাকদের নিয়ে যে দল গঠিত হয়েছে সেটির নাম বিএনপি। সুতরাং তারা নানা কথা বলছে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here