জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সাথে বাংলাদেশে নিযুক্ত ব্রিটিশ রাষ্ট্রদূত অ্যালিসন ব্লেক রবিবার তার কার্যালয়ে বিদায়ী সাক্ষাৎ করেছেন।

সাক্ষাৎকালে তারা সংসদীয় গণতন্ত্র, বাংলাদেশের সংসদীয় কার্যক্রম, আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন ও জলবায়ু পরিবর্তন নিয়ে আলোচনা করেন।

স্পিকার বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশে অভূতপূর্ব উন্নয়ন ঘটেছে। সংসদীয় গণতন্ত্রকে প্রাতিষ্ঠানিক রূপ দিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আন্তরিকতার সাথে কাজ করছেন।’

প্রথমবার নব নির্বাচিত সংসদ সদস্যদের সংসদ কার্যক্রমে সমৃদ্ধ করতে ওরিয়েন্টেশন কর্মসূচির আয়োজন করা হয়েছে এবং ভবিষ্যতে প্রয়োজনীয় কর্মশালা আয়োজনের মাধ্যমে তাদেরকে আরও দক্ষ করে তোলা হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন স্পিকার।

তিনি আরও বলেন, ইউএনডিপি, ইউএনএফপিএসহ বিভিন্ন সংস্থা যৌথভাবে জাতীয় সংসদের সাথে সংসদীয় গণতন্ত্রকে শক্তিশালী করতে কাজ করছে।

এছাড়া যুবকদের রাজনীতি ও সংসদ বিষয়ে সচেতন করে তুলতে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের নিয়ে জাতীয় সংসদ ‘সিপিএ রোড শো’র আয়োজন করে। ভবিষ্যতে এ ধরনের রোড শো’র আরও আয়োজন করা হবে বলেও তিনি উল্লেখ করেন।

রাষ্ট্রদূত অ্যালিসন ব্লেক বাংলাদেশের অভূতপূর্ব উন্নয়নের প্রশংসা করে বলেন, ‘বাংলাদেশ শিল্প-সংস্কৃতিতে অত্যন্ত সমৃদ্ধ।’ বাংলাদেশে অবস্থানকালীন সময়কে সুখকর উল্লেখ করে এ দেশের জনগণের আতিথেয়তায় সন্তোষ প্রকাশ করেন তিনি।

যুক্তরাজ্যের সাথে বাংলাদেশের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক দীর্ঘদিনের। ভবিষ্যতে এ সম্পর্ক আরও সুদৃঢ় হবে বলেও তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

অ্যালিসন ব্লেক স্পিকারকে নারী দিবসের আগাম শুভেচ্ছা জানিয়ে বলেন, ‘বাংলাদেশের নারীদের রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক ক্ষমতায়ন দৃষ্টান্তমূলক।’ এ সময় সফলতার সাথে তিন বছর বাংলাদেশে দায়িত্ব পালন করায় স্পিকার রাষ্ট্রদূতের ভূমিকার প্রশংসা করেন।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here