সিঙ্গাপুরের মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন ওবায়দুল কাদেরের অবস্থা বাংলাদেশে থাকাকালীন অবস্থার চেয়ে ভালো বলে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানিয়েছেন কাদেরের সঙ্গে থাকা নিউরো চিকিৎসক ডা. আবু নাসের রিজভী।

মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালের ডা. ফিলিপ কো’র তত্ত্বাবধানে আওয়ামী লীগের এই সাধারণ সম্পাদকের স্বাস্থ্যগত নানা পরীক্ষা-নিরীক্ষা চলছে।

ডা. আবু নাসের রিজভী জানান, পথে কোনো সমস্যা ছাড়াই বাংলাদেশ সময় সোমবার রাত ৮টার দিকে ওবায়দুল কাদেরকে বহনকারী এয়ার অ্যাম্বুলেন্সটি সিঙ্গাপুরে পৌঁছায়। এরপর একটি অ্যাম্বুলেন্সে করে তাকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

পুরোটা সময় ওবায়দুল কাদেরের শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল ছিল। রক্তচাপ ছিল ১৩৫/৭৮। হাসপাতালে নিয়ে তাকে ৩০০৮ নম্বর আইসিইউতে ভর্তি করা হয়। বর্তমানে তার সঙ্গে আছেন স্ত্রী ইশরাতুন্নেসা।

মঙ্গলবার সকালে চিকিৎসকরা তাকে আবারো দেখবেন বলে জানান ডা. রিজভী।

সোমবার দুপুর সাড়ে ৩টার দিকে কাদেরকে নিয়ে একটি অ্যাম্বুলেন্স শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের উদ্দেশে বিএসএমএমইউ ত্যাগ করে। পরে সাড়ে চারটার একটু আগে বিমানবন্দর ছেড়ে যায় ওবায়দুল কাদেরকে বহনকারী এয়ার অ্যাম্বুলেন্স।

এর আগে তার অবস্থা খানিকটা স্থিতিশীল থাকায় এখনই দেশের বাইরে নেয়ার উপযুক্ত সময় বলে মতামত দেন ভারতের প্রখ্যাত হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ দেবী প্রসাদ শেঠি।

রোববার ভোরে হঠাৎ হৃদরোগে আক্রান্ত হলে রোববার সকাল পৌনে আটটার দিকে গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী কাদেরকে বিএসএমএমইউ’র কার্ডিয়াক বিভাগে ভর্তি করা হয়।

এরপর থেকে তিনি সোমবার সিঙ্গাপুর নেয়ার আগ পর্যন্ত বিএসএমএমইউ’র করোনারি কেয়ার ইউনিটে (সিসিইউ) নিবিড় পর্যবেক্ষণে চিকিৎসাধীন ছিলেন।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here