খাদের কিনারায় দাঁড়িয়ে থাকা রেড ডেভিলসরা যে এভাবে ঘুরে দাঁড়াবে, সেটা বোধহয় স্বপ্নেও ভাবেনি ফুটবলপ্রেমীরা৷ তবে বিশেষজ্ঞদের সব হিসাব ওলট পালট করে প্যারিসে নতুন ইতিহাস লিখল ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড৷

চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ইতিহাসে প্রথম লেগে দুই অথবা তার বেশি গোলে পিছিয়ে থেকে নকআউট পর্বে জয় পাওয়ার রেকর্ড খুব কমই আছে। তার উপর ঘরের মাটিতে দুর্দান্ত ছন্দে রয়েছে পিএসজি। তাই ইতিহাস পিএসজির হয়ে কথা বললেও ম্যানইউ নতুন করে ইতিহাস তৈরি করল বুধবার রাতে।

নিজেদের মাঠে হাস্যকর দুটি ভুলে প্রথমার্ধেই দুই গোল হজম করে বসে পিএসজি। তারপরও দুই লেগ মিলিয়ে গোল ব্যবধানে এগিয়ে থেকে লক্ষ্য পূরণের পথেই ছিল প্যারিসীয়রা। কিন্তু শেষ মুহূর্তের নাটকীয়তায় পাল্টে গেল পুরো চিত্র।

শেষ ষোলোর ফিরতি পর্বে প্যারিসের দলটিকে ৩-১ গোলে হারিয়ে শেষ আটে উঠে গেল ইংলিশ ক্লাবটি। দুই লেগ মিলিয়ে স্কোরলাইন দাঁড়ায় ৩-৩। কিন্তু প্রতিপক্ষের মাঠে এক গোল বেশি করে পরের রাউন্ডের টিকেট পায় উলে গুনার সুলশারের দল। প্রথম লেগে ২-০ গোলে জিতেছিল উনাই এমরির দল। এই নিয়ে টানা তিন মৌসুমে প্রতিযোগিতাটির শেষ ষোলো থেকেই বিদায় নিলো পিএসজি।

যদিও এ ক্ষেত্রে ভাগ্যের কিছুটা সাহায্য পায় ম্যানইউ৷ লুকাকুর জোড়া গোল নিয়ে সংশয় প্রকাশ করার কোনও অবকাশ নেই৷ তবে ইনজুরি টাইমে ভিএআরের বদান্যতায় ম্যানইউ পনাল্টি না পেলে ছবিটা অন্যরকম হত নিশ্চিত৷ দলের হয়ে কখনও স্পট কিক না নেওয়া রাশফোর্ড এমন গুরুত্বপূর্ণ সময়ে পেনাল্টি থেকে নিজের প্রথম গোল করে ম্যানইউর বিজয়গাথা রচনা করেন৷ পিএসজির হয়ে সান্ত্বনার গোলটি করেন জুয়ান বার্নাট৷

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here