ভারতের মধ্যপ্রদেশ ট্যুরিজম এবং হেরিটেজ-এর মুখ হতে চলেছেন সালমান খান। প্রথমটায় এই খবর নিয়ে জল্পনা কল্পনা চললেও, সম্প্রতি রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী কমল নাথ নিশ্চিত করেন যে সালমান মধ্যপ্রদেশের পযর্টন ও সংস্কৃতির হয়ে প্রচারে নামছেন।

এর আগে অবশ্য পশ্চিমবঙ্গের ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর হিসেবে শাহরুখ খান এবং গুজরাট ট্যুরিজমের প্রচারে অমিতাভ বচ্চনকে দেখা গিয়েছিল। ইনক্রেডিবল ইন্ডিয়ার প্রচারে ‘অতিথি দেব ভব’তে আমির খানের উপস্থিতিও ছিল চোখে পড়ার মতোই। এবার এই তালিকায় নাম লেখালেন সালমান খান। সব ঠিক থাকলে এপ্রিলের প্রথম সপ্তাহেই শুরু হবে পযর্টন ও সংস্কৃতি দপ্তরের প্রচার ভিডিওর শুট।

চলতি সপ্তাহের মঙ্গলবারই ভাইজান সালমানের সঙ্গে কথা বলেছেন মধ্যপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী কমল নাথ। সেখানেই তিনি সালমানকে জিজ্ঞেস করেন মধ্যপ্রদেশের উন্নয়নের জন্য তিনি কীভাবে সাহায্য করতে পারবেন। ভাইজানও পিছিয়ে আসেননি। বরং, রাজ্যের পযর্টন ও সংস্কৃতির দপ্তরের হয়ে তিনি প্রচারে নামবেন। পয়লা এপ্রিল থেকে এপ্রিলের ১৮ তারিখ অবধি মধ্যপ্রদেশেই থাকবেন সালমান– এমনটাই জানিয়েছেন মধ্যপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী কমল নাথ।

সংবাদ প্রতিদিন পত্রিকার খবরে বলা হয়, বলিউড সুপারস্টার সালমান জন্মসূত্রে মধ্যপ্রদেশের ইন্দোরের। বাবা সেলিম খান কর্মসূত্রে মুম্বাইতে চলে আসার আগে সালমানের শৈশবের বেশ কয়েক বছর কেটেছে ইন্দোরে। তাই এই জায়গার প্রতি তার একটা আলাদা টান রয়েছে। সালমানের মোটা বাজেটের বেশকিছু ছবির শুটিং হয়েছে এই রাজ্যে।

অন্যদিকে, কংগ্রেসের ঘনিষ্ঠসূত্রের আরও এক খবরে শুরু হয়েছে এক নতুন জল্পনা-কল্পনার। মধ্যপ্রদেশের ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর হিসেবেও ভবিষ্যতে দেখা মিলতে পারে সালমান খানের। তাহলে কি, রাজনীতির ময়দানে নাম লেখাতে চলেছেন বলিপাড়ার আরেক অভিনেতা? বলবে সময়ই।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here