সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল-আসাদ বলেছেন, বিদেশি মদদে চাপিয়ে দেয়া জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে আট বছরের লড়াই শেষে এখন তার দেশকে অর্থনৈতিক যুদ্ধ মোকাবিলা করতে হচ্ছে। সিরিয়া সফররত চীনের সহকারী পররাষ্ট্রমন্ত্রী চেন শিয়াওডন’র সঙ্গে দামেস্কে এক বৈঠকে তিনি এ মন্তব্য করেন।

প্রেসিডেন্ট আসাদ বলেন, কিছু বিদ্বেষী শক্তি বয়কট, রাষ্ট্রদূত প্রত্যাহার, অর্থনৈতিক অবরোধ আরোপ এবং সন্ত্রাসবাদ ব্যবহার করে দামেস্কের বিরুদ্ধে এই যুদ্ধ চালাচ্ছে। তিনি সিরিয়ায় তৎপর জঙ্গিবাদের মূলোৎপাটন এবং রাজনৈতিক উপায়ে চলমান সংকট নিরসনের জন্য আন্তর্জাতিক সমাজকে ভূমিকা রাখার আহ্বান জানান।

প্রেসিডেন্ট আসাদ বলেন, সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ অব্যাহত থাকলে তা এক সময় দেশে রাজনৈতিক সমাধান বয়ে আনবে ঠিকই; কিন্তু যতক্ষণ বহিঃশক্তিগুলো সন্ত্রাসবাদ ছড়িয়ে দেয়ার চেষ্টা অব্যাহত রেখেছে ততক্ষণ রাজনৈতিক সমাধানের আকাঙ্ক্ষা করা হবে অলীক কল্পনা এবং আত্মপ্রবঞ্চনার শামিল।

সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট চীনা মন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকে বলেন, শুধুমাত্র সামরিক শক্তি দিয়ে সন্ত্রাসবাদকে পরাজিত করা সম্ভব নয়; বরং এর চেয়েও বেশি গুরুত্বপূর্ণ হচ্ছে উগ্র ও সন্ত্রাসবাদী চিন্তাধারা ও দর্শনের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করা।

সাক্ষাতে চীনের সহকারী পররাষ্ট্রমন্ত্রী চেন গত আট বছর ধরে সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে যুদ্ধে সিরিয়ার সেনাবাহিনী ও জনগণের সাহসিকতার ভূয়সী প্রশংসা করেন। তিনি সিরিয়া থেকে সম্পূর্ণভাবে সন্ত্রাসবাদ নির্মূলে চীনের পক্ষ থেকে সব ধরনের সহায়তা দেয়ার আশ্বাস দেন।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here